২০০ মেট্রিক টন অক্সিজেন সিরাজগঞ্জে খালাসের অপেক্ষায়

প্রথমবারের মতো ভারতীয় রেলওয়ের ‘অক্সিজেন এক্সপ্রেস’ ১০টি কনটেইনারে ২০০ মেট্রিক টন তরল মেডিক্যাল অক্সিজেন (এলএমও) নিয়ে বাংলাদেশে এসেছে। এখন অক্সিজেনগুলো সিরাজগঞ্জে খালাসের অপেক্ষায় রয়েছে।

রবিবার (২৫ জুলাই) বেলা পৌনে ১১টার দিকে ১০ কন্টেইনার অক্সিজেন নিয়ে একটি ট্রেন বঙ্গবন্ধ সেতু পশ্চিম স্টেশনে প্রবেশ করেছে। সেখান থেকে খালাস করে লরিতে করে ঢাকা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে রেল ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

এর আগে ভারতের ঝাড়খন্ড প্রদেশের জামশেদপুর টাটানগর থেকে শনিবার (২৪ জুলাই) সকাল ১০টায় দশ কন্টেইনার অক্সিজেন নিয়ে একটি ট্রেন বাংলাদেশের উদ্দেশে ছেড়ে আসে। রাত ১০টায় ট্রেনটি বেনাপোল স্টেশন হয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে।

শনিবার ভারতের তথ্য অধিদপ্তর এক বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, শনিবার সকাল ৯টা ২৫ মিনিটে ১০টি কন্টেইনারে ২০০ মেট্রিক টন তরল মেডিকেল অক্সিজেন লোডিং সম্পন্ন হয়েছে। অক্সিজেন এক্সপ্রেস নামে বিশেষ ট্রেনটি বাংলাদেশের উদ্দেশে রওনা হয়েছে।

ভারতের তথ্য অধিদপ্তর জানায়, ২০২১ সালের ২৪ এপ্রিল ভারতে এই বিশেষ ট্রেন সেবা শুরুর পর থেকে এই প্রথম প্রতিবেশী দেশে অক্সিজেন এক্সপ্রেস চালু হলো। এ পর্যন্ত ভারতের অভ্যন্তরে এই ধরনের ৪৮০টি অক্সিজেন এক্সপ্রেস চালু করা হয়েছে। এই অক্সিজেন চলমান করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের হাসপাতালগুলোতে সরবরাহ করা হবে।

ভারতের তথ্য অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, ভারত তার মহামারি পরিস্থিতি উন্নয়নের সঙ্গে সঙ্গে প্রতিবেশীদের মধ্যে নিকটতম অংশীদারদের সঙ্গে চিকিৎসা সরবরাহ ভাগ করে নেওয়ায় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

গত এপ্রিলে ভারতে দ্বিতীয় দফায় করোনার প্রকোপ শুরুর পর রাজ্যে রাজ্যে দেখা দেওয়া অক্সিজেনের ভয়াবহ সংকটের মধ্যে ভারতীয় রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ রাজ্যগুলোয় অক্সিজেন সরবরাহের জন্য অক্সিজেন এক্সপ্রেস নামে বিশেষ এই ট্রেন চালু করেছিল।

গত ২৪ এপ্রিল থেকে ভারতীয় রেলওয়ের এই বিশেষ ট্রেন সেবা চালু হয়। দেশটিতে এখন এ রকম অন্তত ৪৮০টি ট্রেন রয়েছে। এপ্রিলে চালু হওয়ার পর এসব ট্রেনের মাধ্যমে ৩৬ হাজার ৮৪১ টন তরলীকৃত মেডিক্যাল অক্সিজেন সরবরাহ করা হয়েছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.