হেলেনা জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে মামলা ডিবিতে

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দলীয় পরিচয় ব্যবহার করে বিতর্কিত কর্মকাণ্ড করায় আওয়ামী লীগের উপকমিটি থেকে বহিষ্কার হন ব্যবসায়ী হেলেনা জাহাঙ্গীর। দল থেকে বহিষ্কার হওয়ার পরই তার বাসায় অভিযান চালায় র‌্যাব। অভিযানে তারা বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ মাদক উদ্ধার করা। এরপরই তাকে আটক করে র‌্যাব সদর দপ্তরে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে তার বিরুদ্ধে গত শুক্রবার (৩০ জুলাই) র‌্যাব বাদী হয়ে রাজধানীর গুলশান থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করে।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলার তদন্তভার ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) থেকে গোয়েন্দা শাখায় (ডিবি) স্থানান্তর করা হয়েছে।

রোববার (১ আগস্ট) বিকেলে গুলশান থানা থেকে মামলার তদন্তভার ডিবির স্পেশাল সাইবার ক্রাইম বিভাগে হস্তান্তর করা হয়। মামলা হস্তান্তরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ডিএমপির গুলশান বিভাগের উপকমিশনার সুদীপ কুমার চক্রবর্ত্তী।

তিনি বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় রিমান্ডে থাকা হেলেনা জাহাঙ্গীরকে ডিবির কাছে সোপর্দ করা হয়েছে। তিন দিনের রিমান্ডের আজ দ্বিতীয় দিন।

সম্প্রতি ফেসবুকে নেতা বানানোর ঘোষণা দিয়ে ছবি পোস্ট করে আলোচনা-সমালোচনার জন্ম দেন হেলেনা জাহাঙ্গীর। বাংলাদেশ আওয়ামী চাকরিজীবী লীগ নামের একটি সংগঠনের ব্যানারে সংগঠনটির জেলা, উপজেলা ও বিদেশি শাখায় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নিয়োগ দেওয়া হবে বলে ঘোষণা দেওয়া হয়, যা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়। কথিত এই সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি হিসেবে হেলেনা জাহাঙ্গীর ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে মাহবুব মনিরের নাম উল্লেখ করা হয়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.