হেফাজত নেতা আজিজুল হক ফের ৭ দিনের রিমান্ডে

হেফাজতের তাণ্ডবের ঘটনায় করা দুই মামলায় হেফাজতে ইসলামের বিলুপ্ত কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক ইসলামাবাদীর সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। সোমবার ঢাকা মহানগর হাকিম মাসুদুর রহমান শুনানি শেষে এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এদিন বায়তুল মোকাররমে চলতি বছরের মার্চ মাসে হেফাজতের তাণ্ডবের ঘটনায় পল্টন থানায় করা এক মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য আজিজুল হক ইসলামাবাদীর সাত দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। এরপর শুনানি শেষে আদালত তার তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। একইসঙ্গে পল্টন থানার আরেক মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে তাকে ১০ দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। এরপর শুনানি শেষে আদালত চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এদিকে গত ১১ এপ্রিল মধ্যরাতে চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে র‍্যাবের সঙ্গে যৌথ অভিযানে আজিজুল হককে গ্রেফতার করে মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। এরপর গত ১২ এপ্রিল ঢাকা মহানগর হাকিম দেবদাস চন্দ্র অধিকারীর আদালত ২০১৩ সালে পল্টন থানায় করা মামলায় সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। তারপর ঢাকা মহানগর হাকিম শাহিনুর রহমানের আদালতে ২০১৩ সালের রাজধানীর মতিঝিল থানায় নাশকতার মামলায় তার সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

২০১৩ সালের ৫ মে অবরোধ কর্মসূচির নামে লাঠিসোটা, ধারালো অস্ত্র ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে রাজধানীর মতিঝিল, পল্টন ও আরামবাগসহ আশপাশের এলাকায় যানবাহন ও সরকারি-বেসরকারি স্থাপনায় ব্যাপক ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা। এ ঘটনায় পল্টন থানায় মামলা করা হয়।

সম্প্রতি বায়তুল মোকাররম মসজিদ, পল্টন, যাত্রাবাড়ীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে তাণ্ডব এবং ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ। এরপর এ ঘটনায় রাজধানীর বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা হয়। তদন্তে নামে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। তদন্তের অংশ হিসেবে সেদিনের ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী, গ্রেফতারকৃতদের দেয়া তথ্য, একইসঙ্গে ঘটনার ভিডিও ফুটেজ পর্যালোচনা করে জড়িতদের শনাক্ত করা হচ্ছে। পরে নিশ্চিত হওয়ার পরই সন্দেহভাজন আসামিদের গ্রেফতার করছে পুলিশ।

আরও পড়ুন
Loading...