হিলি বন্দরে ৬ দিন আমদানি-রফতানি বন্ধ

দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে টানা ছয়দিন বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে পণ্য আমদানি-রফতানি কার্যক্রম বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে ভারতের হিলি এক্সপোর্টার অ্যান্ড কাস্টমস ক্লিয়ারিং এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের এই ঘোষণা সোমবার থেকে কার্যকর হবে।

দেশের বাংলাহিলি কাস্টমস সিএন্ডএফ এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক জামিল হোসেন চলন্ত বলেন, হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা সোমবার থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হচ্ছে। এ কারণে ভারতের হিলি এক্সপোর্টার অ্যান্ড কাস্টমস ক্লিয়ারিং এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের সেক্রেটারি ধিরাজ অধিকারী আমাদের পত্র দিয়ে ছয়দিন হিলি স্থলবন্দর দিয়ে এই দুই দেশের মধ্যে পণ্য আমদানি-রফতানি কার্যক্রম বন্ধ রাখার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন। তাই সোমবার থেকে ১৬ অক্টোবর পর্যন্ত এই বন্দরের মাধ্যমে সব ধরনের পণ্য আনা-নেয়া বন্ধ থাকবে।

তিনি আরও জানান, ১৭ অক্টাবর থেকে যথারীতি বন্দর দিয়ে পুনরায় শুরু হবে বন্দরের সব কার্যক্রম। বন্ধের এই বিষয়টি বন্দরের আমদানি-রফতানিকারক, সিএন্ডএফ এজেন্টসসহ সব শ্রমিক সংগঠনকে পত্র দিয়ে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

বন্দরের কাস্টমস কার্যালয়ের একটি সূত্র জানায়, ভারতের ব্যবসায়ীরা ছয়দিন বন্ধের সিদ্ধান্ত নিলেও শুধুমাত্র পূজার দশমীর দিন (সরকারি ছুটি) কাস্টমস কার্যালয় বন্ধ থাকবে। তার আগে-পরে অফিস চালু থাকবে। ব্যবসায়ীরা চাইলে সরকারি শুল্ক পরিশোধ করে তাদের পণ্য খালাস করে নিতে পারবে।

এদিকে হিলি ইমিগেশন চেকপোস্টের ওসি মো. সেকেন্দার আলী জানান, হিলি চেকপোস্ট দিয়ে প্রতিদিন ভারত থেকে পাসপোর্টে যাত্রী আসা স্বাভাবিক থাকবে। তবে বাংলাদেশ থেকে ভারতে যাত্রী যাওয়া বন্ধ রয়েছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.