হাই ফ্লো নেজাল ক্যানোলা নিয়ে এগিয়ে আসার আহ্বান মেয়র আতিকের

করোনা রোগীদের প্রয়োজন মেটাতে হাই ফ্লো নেজাল ক্যানোলা নিয়ে বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটির মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম। আজ (১৫ জুলাই) বেলা ১টার দিকে মহাখালীর ডিএনসিসি ডেডিকেটেড কোভিড হাসপাতালে করোনা রোগীদের জীবন রক্ষাকারী বাইপাপ এবং হাই ফ্লো নেজাল ক্যানোলা মেশিন হস্তান্তর অনুষ্ঠানে এই আহ্বান জানান মেয়র।

এসময় আতিকুল ইসলাম বলেন, এই ভবনে একটি মার্কেট ছিলো। ভাড়া দিলে মাসে এক কোটি টাকা পেতাম। তবে এই দুসঃময়ে আমরা এখানে কোভিড হাসপাতাল করেছি। এখানে আমরা সারাদেশের মানুষকে যে সেবা দিতে পারছি সেটাই আমাদের প্রাপ্তি। আমরা ডিএনসিসি এই ভবনটি দিয়ে দিয়েছি, যার জন্য কোনো ভাড়া নিই না।

নগরবাসীর প্রতি হাই ফ্লো নেজাল ক্যানোলা দেয়ার আহ্বান জানিয়ে মেয়র বলেন, যার যার ক্ষমতা আছে তারা কোভিড সরঞ্জাম দান করুন। একটি হাই ফ্লো নেজাল ক্যানোলায় একটা মানুষ বেঁচে যাবে, তার পরিবার বেঁচে যাবে। আমি দুই হাত জোড় করে বিত্তশালীদের এগিয়ে আসার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি।

মেয়র আরো বলেন, কয়েকদিন পরে কোরবানি। আপনারা হাটে বাচ্চা এবং বয়স্কদের নিয়ে যাবেন না, একলা যাবেন। প্রয়োজনে অনলাইনে গরু কিনুন। এতে সংক্রমণের ঝুঁকি কমবে।

পরে মেয়র আতিকুল ইসলাম আটটি হাই ফ্লো নেজাল ক্যানোলা, ১৮টি বাইপপ মেশিন ডিএনসিসি করোনা হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাসির উদ্দিনের কাছে হস্তান্তর করেন। এছাড়াও ৪০টি প্রয়োজনীয় এক্সেসরিজ দেন মেয়র। ভবিষ্যতে আরো মেশিন দেয়ার প্রতিশ্রুতিও দেন আতিকুল ইসলাম।

ডিএনসিসি জানিয়েছে, প্রতিটি বাইপাপ মেশিনের দাম ৮০ থেকে ৯০ হাজার টাকা এবং প্রতিটি হাই ফ্লো নেজাল ক্যানোলার দাম আড়াই থেকে তিন লাখ টাকা।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম রেজা, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, ডিএনসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. জোবায়দুর রহমানসহ অন্যান্য কর্মকর্তা এবং কাউন্সিলরবৃন্দ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.