সকালে ৩০ টাকা খরচ করে দুপুরে হলেন কোটিপতি

রামকৃষ্ণ প্রামানিক। ছিলেন একজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী। দিন এনে দিন খাওয়ার মতো অবস্থা তার। অর্থের অভাবে ছেলের পড়াশুনা বন্ধ হয়ে গেছে। তবে এবার ভাগ্য খুললো তার। মাত্র কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে হয়ে গেলেন কোটিপতি।

ভারতের নলহাটির ভগবতীপুরের সেই ব্যবসায়ীর মাত্র ৩০ টাকায় পাল্টে গেল ভাগ্য। সকালে ৩০ টাকা দিয়ে লটারি কিনে দুপুরের মধ্যেই কোটিপতি হয়ে গেছেন তিনি।

গত সোমবার কাউন্টার থেকে লটারি কিনেছিলেন ওই ব্যবসায়ী। দুই দিন পরে ড্র হলে দেখেন এক কোটি টাকার প্রথম পুরস্কার তারই। অবশ্য টাকা এখনও তার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে জমা হয়নি।

গণমাধ্যমকে তিনি জানিয়েছেন, কোটি টাকার প্রথম পুরস্কার আমার জেনে আমি লাফিয়ে উঠি। এখনও টাকা হাতে পাইনি। লটারি ইন্সপেক্টর আমার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নম্বর ও টিকিটটা নিয়ে গেছেন। তিনি বলেছেন, সরকারিভাবে প্রক্রিয়া শেষ করে ১০-১৫ দিনের মধ্যে অ্যাকাউন্টে টাকা ঢুকে যাবে।

ওই ব্যক্তির ছেলে বলেন, বাবা বিজয়ী হয়ে অনেক খুশি। তবে বছর খানেক আগে পুরস্কার পেলে আমাকে আর লেখাপড়া ছাড়তে হতো না। পুলিশের চাকরির ইচ্ছা ছিল আমার। কিন্তু অর্থ ও পারিবারিক সমস্যার জন্য তা হয়ে উঠেনি। এখন আমি বাবার ব্যবসার দেখভাল করছি।

তিনি আরও জানান, আমি লেখাপড়ার পাশাপাশি বেসরকারি একটি কাজে যুক্ত হয়েছি। উচ্চমাধ্যমিকে উত্তীর্ণ হওয়ার পর কলেজে পড়া হয়নি। ছোট বোন কলেজে পড়ে। ওর স্কুল শিক্ষিকা হওয়ার স্বপ্ন। ব্যাংক থেকে ঋণ নেয়া হয়েছে। পুরস্কারের টাকায় এসব ঋণ থেকে মুক্তি পাব আমরা। সকল স্বপ্ন পূরণ হবে আমাদের। দিন আনি দিন খাই, এভাবেই সংসার চলতো আমাদের। এখন বাবাকে দুঃস্থ শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য বলব।

Leave A Reply

Your email address will not be published.