লকডাউনে রেকর্ড মুনাফা পেল গুগলের মূল প্রতিষ্ঠান অ্যালফাবেট

করোনার বৈশ্বিক মহামারিতে বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে লকডাউন ও বাইরে চলাচলে বিধি-নিষেধ জারি থাকায় মানুষজনকে বাড়িতেই থাকতে হচ্ছে। আর, গুগলের মূল প্রতিষ্ঠান অ্যালফাবেট বলছে, এমন করোনাকালে তাদের বিভিন্ন পরিষেবা অন্য যেকোনো সময়ের চেয়ে বেশি নিয়েছে মানুষজন। যার প্রভাব পড়েছে অ্যালফাবেটের আয়ে। অ্যালফাবেট জানিয়েছে, চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে তাদের আয় বেশ বেড়েছে। সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

বিবিসি জানিয়েছে, চলতি বছরের প্রথম তিন মাসে অ্যালফাবেটের নিট মুনাফা ১৬২ শতাংশ বেড়ে রেকর্ড ১৭ দশমিক ৯ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে দাঁড়িয়েছে। এ সময় বিজ্ঞাপন থেকে আয় বেড়েছে এক-তৃতীয়াংশ। এমন একটা সময়ে অ্যালফাবেটের এই আয়বৃদ্ধির খবর মিলল যখন যখন অ্যালফাবেটকে তার ক্ষমতার বিষয়ে আতশ কাচের নিচে পড়তে হচ্ছে হরহামেশা। মহামারিকালে যেকোনো সময়ের তুলনায় মানুষের ইন্টারনেট ব্যবহার বেড়েছে।

অ্যালফাবেট ও গুগলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সুন্দর পিচাই বলেন, ‘গত বছর থেকে মানুষ তথ্য জানতে, সংযুক্ত থাকতে এবং বিনোদনের জন্য গুগলে অনুসন্ধান করেছেন এবং অনেক অনলাইন পরিষেবা গ্রহণ করেছেন।’ তবে অ্যালফাবেটের এমন মুনাফার বিষয়ে বিশ্লেষকেরা আগেই বলেছিলেন যে, বিশ্বের নানা প্রান্তে অর্থনীতি চালু হতে শুরু করায় অনলাইন বিজ্ঞাপনে অর্থ ব্যয়ের পরিমাণও বাড়ছে।

চলতি বছরের প্রথম তিন মাসে গুগলের অনুসন্ধান ব্যবসা বেড়েছে ৩০ শতাংশ। অর্থের হিসাবে যা ৩১ দশমিক ৯ বিলিয়ন। আর ইউটিউবে থেকে আয় বেড়েছে ৪৯ শতাংশ বা ছয় বিলিয়ন মার্কিন ডলার। তবে মুনাফা বাড়লেও একমাত্র যে সমস্যা অ্যালফাবেটকে মোকাবিলা করতে হচ্ছে তা হলো- প্রতিযোগিতা ও গোপনীয়তার ইস্যুতে নিয়ন্ত্রক সংস্থার হস্তক্ষেপ।

গত সোমবার স্ট্রিমিং টিভি টেকনোলজি কোম্পানি রোকু অভিযোগ করেছে যে, গুগল তার ইউটিউব ও হার্ডওয়্যার ব্যবসার সুবিধার জন্য যা করছে তা প্রতিযোগিতামূলক আচরণ নয়। এদিকে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় নিয়ন্ত্রক সংস্থা গুগল এবং অন্যান্য প্রযুক্তি সংস্থাগুলোর তদারকির বিষয়ে আলোচনা অব্যাহত রেখেছে। তবে এখনও কোনো আইনি পন্থার বিষয়ে একমত হতে পারেনি তারা।

আরও পড়ুন
Loading...