মেসির জন্য নিয়ম বদলালো ফ্রেঞ্চ লিগ

বার্সার অধ্যায় শেষ করেই সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে ফ্রান্সের প্যারিস সেইন্ট জার্মেইনতেই (পিএসজিতে) যোগ দিলেন সর্বকালের অন্যতম সেরা ফুটবলার লিওনেল মেসি।

মঙ্গলবার রাতে প্যারিসে আনুষ্ঠানিকভাবে ফ্রেঞ্চ ক্লাব প্যারিস সেইন্ট জার্মেইর (পিএসজি) খেলোয়াড় হয়ে গেছেন আর্জেন্টাইন এই জাদুকর। বোনাস ও অন্যান্য সুবিধাসহ বাৎসরিক প্রায় ৩৫ মিলিয়ন ইউরো পারিশ্রমিকের বিনিময়ে মেসিকে দলে ভিড়িয়েছে পিএসজি। মেসিকে দলে ভেড়াতে পেরে উচ্ছ্বসিত ক্লাবটি।

বিশ্বের অন্যতম সেরা খেলোয়াড়কে নিজেদের টুর্নামেন্টে পেয়ে নিয়ম বদলাতেও দ্বিধা করেনি ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ান কর্তৃপক্ষ।

মেসির জন্য জার্সি নম্বরের নিয়মে পরিবর্তন আনা হয়েছে। যাতে করে নিজের পছন্দমতো ৩০ নম্বর জার্সি পরে খেলতে পারেন মেসি।

মেসির পিএসজিতে যোগদানের খবর প্রায় নিশ্চিত হওয়ার পরপরই নিজের ১০ নম্বর জার্সি ছেড়ে দিতে রাজি হয়েছিলেন পিএসজির ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার নেইমার। তবে তা নেননি। গুঞ্জন শোনা গিয়েছিল, পিএসজিতে হয়তো ১৯ নম্বর পরবেন জার্সি মেসি।

শেষপর্যন্ত পিএসজিতে ৩০ নম্বর জার্সি নিয়েছেন মেসি। যা তার বার্সেলোনা ক্যারিয়ার শুরুর সময়ের জার্সি নম্বর।

২০০৩ সালে বার্সেলোনায় অভিষেকের সময় ৩০ নম্বর জার্সি পরেছিলেন মেসি। পরে ২০০৬ সালে বদলে পরেন ১৯ নম্বর জার্সি।

আর ২০০৮ সালের পর থেকে ১০ নম্বর জার্সিকে নিজের সমার্থকই বানিয়ে ফেলেছিলেন মেসি। কিন্তু এখন পিএসজিতে আর সেই ১০ নম্বর জার্সিতে দেখা যাবে না তাকে। নতুন ঠিকানায় পুরোনো জার্সি নম্বর নিয়ে খেলবেন মেসি।

এটি করার জন্য লিগ ওয়ানকে আনতে হয়েছে নিয়মের পরিবর্তন। কারণ লিগের নিয়মে স্পষ্ট বলা আছে দলের ১, ১৬ ও ৩০ নম্বর জার্সি রাখতে হবে গোলরক্ষকদের জন্য। কিন্তু মেসি তো আর গোলরক্ষক নন। তাই নিজেদের নিয়মে শিথিলতা এনে তাকে ৩০ নম্বর জার্সি পরার অনুমতি দিয়েছে লিগ ওয়ান কর্তৃপক্ষ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.