মালয়েশিয়ায় রোহিঙ্গা অপকর্মের ফল দিতে হচ্ছে প্রবাসীদের

মালয়েশিয়া কুয়ালালামপুরে সবচাইতে বড় পাইকারি বাজার স্যালায়াং এবং তার আশেপাশে থেকে বৈধ এবং অবৈধ প্রবাসীদেরকে মালয়েশিয়ান তিন বাহিনী ( ইমিগ্রেশন, পুলিশ এবং রেলার) মিলে আটক করেছে । মূলত মালয়েশিয়াতে অবস্থানরত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী দীর্ঘদিন বিভিন্নভাবে দেশটিতে অপকর্ম করে আসছে ।

মালয়েশিয়ান সরকার রোহিঙ্গাদের কে রিফুজি হিসেবে মালয়েশিয়া তে থাকার সুযোগ দিয়েছে । বর্তমানে এই রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী বিভিন্নভাবে মালয়েশিয়ার আইন শৃঙ্খলা অমান্য করে অবৈধভাবে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে । তারা কুয়ালালামপুর পাইকারি বাজার স্যালায়েং অবৈধভাবে রাস্তা দখল করে দীর্ঘদিন ধরে ব্যবসা করে আসতেছে । মালয়েশিয়ার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান কাগজপত্র এবং দোকানপাট পর্যবেক্ষণের জন্য MPJ নামক একটা বাহিনী আছে যারা সারা মালয়েশিয়ার ব্যবসা-বাণিজ্যের উপরে সুবিধা অসুবিধা গুলো দেখাশোনা করে ।

MPJ রোহিঙ্গাদের কে অবৈধভাবে রাস্তা দখল করে ব্যবসা না করার জন্য বহুবার অনুরোধ করেছে এবং একপর্যায়ে রোহিঙ্গারা MPJ দের উপরে আক্রমণ করে বসে । তার ফলশ্রুতিতে মালয়েশিয়ান ইমিগ্রেশন এবং আরো দুই বাহিনী মিলে সেখানে অবস্থানরত রোহিঙ্গা এবং অনেক প্রবাসিদেরকে আটক করেন । মালয়েশিয়া তে অবস্থানরত বেশিরভাগ রোহিঙ্গারা বাংলাদেশী জনগন হিসেবে নিজেদেরকে পরিচয় দেয় যেটা বাংলাদেশের সার্বভৌমত্ব নষ্ট হচ্ছে ।

বাংলাদেশ মানবিক দৃষ্টি বিবেচনা করে রোহিঙ্গাদের কে আশ্রয় দিয়েছে কিন্তু আজ বাংলাদেশকে বিভিন্নভাবে সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে শুধু রোহিঙ্গা ইস্যুতে ।
এমনিতেই বাংলাদেশ একটা অতি জনবহুল সম্পন্ন দেশ ,যেখানে খাদ্য, বস্ত্র, শিক্ষা, বাসস্থান এবং চিকিৎসা অনেকটা ব্যয় সাপেক্ষ ব্যাপার । প্রতিনিয়তই বাংলাদেশে বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ এবং রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার কারণে অর্থনীতির চাকা প্রসার খুব একটা উর্ধগতি নয় । বিভিন্নভাবে দেশে দুর্নীতি, ক্ষমতার অপব্যবহার এবং ব্যক্তিস্বার্থের বিষয়টাকে প্রাধান্য দিয়ে সমষ্টিগত স্বার্থ টাকে অবজ্ঞা করা বাংলাদেশ উন্নতির শিখরে পৌঁছাতে পারছে না ।

আরও পড়ুন
Loading...