মানসিক অবসাদে ক্রিকেট থেকে অনির্দিষ্টকালের বিরতি স্টোকসের

সব ধরনের ক্রিকেট থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বিরতি নিচ্ছেন বেন স্টোকস। মানসিক স্বাস্থ্যের কারণেই এমন সিদ্ধান্ত নিলেন ইংলিশ অলরাউন্ডার। বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে ভারতের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের সিরিজ শুরুর ঠিক আগে বিষয়টি সামনে এলো।

ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট (ইসিবি) বোর্ডকে স্টোকস জানিয়েছেন, মানসিক স্বাস্থ্যের প্রতি যত্ন নিতে এবং আঙুলের চোট থেকে পরিত্রাণ পেতে ক্রিকেট থেকে আপাতত জন্য সরে দাঁড়াতে চান।

এমন সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে ইসিবি। বোর্ড পরিচালক অ্যাশলে জাইলস বলেছেন, আমরা বরাবরই মানসিক স্বাস্থ্যের বিষয়টিকে গুরুত্ব দিই। ক্রিকেটারসহ সবাই যাতে ভালো থাকে তা নিশ্চিত করতে সব পদক্ষেপ করে থাকি।

করোনার মতো কঠিন পরিস্থিতিতে ক্রিকেটারদের প্রস্তুত হয়ে লাগাতার খেলা যে সমস্যা তৈরি করছে সে কথা উল্লেখ করে জাইলস বলেন, পরিবারের থেকে দূরে স্বাধীনমতো ঘোরাফেরা করতে না পারা খুবই চ্যালেঞ্জিং। গেল দেড় বছরের অভিজ্ঞতা সবার উপরই প্রভাব ফেলছে। ভবিষ্যতে যাতে স্বাভাবিক ছন্দে দেশের হয়ে বেন ক্রিকেটে ফিরতে পারেন সেজন্য তিনি যতটা সময় ক্রিকেট থেকে এখন দূরে থাকতে চান, তাঁকে তা-ই দেওয়া হবে।

ইংল্যান্ড দলের রোটেশন পদ্ধতির সাফল্য নিয়েও প্রশ্ন তুলে দিল বেন স্টোকসের সিদ্ধান্ত। দীর্ঘদিন যাতে জৈব সুরক্ষা বলয়ে ক্রিকেটারদের থাকতে না হয় সে কারণে ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে সকলকেই ইসিবি পরিবারের সঙ্গে কাটানোর সুযোগ করে দিয়েছে। কিন্তু ইংল্যান্ডের ভারত সফরের পর স্টোকস আইপিএলের জৈব সুরক্ষা বলয়েও ছিলেন।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে স্টোকসের না থাকা ইংল্যান্ডের দেশের মাটিতে সিরিজ হারের অন্যতম কারণ বলে মনে করা হচ্ছিল। তার মধ্যে ভারতের বিপক্ষেও স্টোকসের না থাকা ইংল্যান্ডের সমস্যা বাড়াল।

সেপ্টেম্বরে ইংল্যান্ডের বাংলাদেশ ও পাকিস্তান সফর রয়েছে অক্টোবরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে। তারপর অ্যাশেজ।

এদিকে ৪ আগস্ট শুরু হচ্ছে ভারতের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্ট। স্টোকসের পরিবর্তে ইংল্যান্ড দলে নেয়া হয়েছে ক্রেগ ওভারটনকে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.