ভোর থেকে লাইনে দাঁড়িয়েও মিলছে না করোনার টিকা

চলমান টিকাদান কর্মসূচিতে রাজধানীর বিভিন্ন কেন্দ্রে দুর্ভোগের অভিযোগ টিকা প্রত্যাশীদের। বুধবার ( ১১ আগস্ট) ভোর থেকে লাইনে দাঁড়িয়েও মিলছে না টিকা। দিনভর অপেক্ষার পর টিকা না নিয়ে ফিরে যাওয়া অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন দায়িত্বরত স্বাস্থ্যকর্মীদের উপর।

রাজধানীর মিরপুরে উদয়ন স্কুল ও জান্নাত একাডেমি টিকাকেন্দ্রে দেখা যায়, ভোর ৫ টা থেকে সাদা টোকেন হাতে টিকা নিতে লাইনে অপেক্ষায় হাজারো মানুষ। টোকেন যারা পেয়েছেন তারা ধারণাই করছেন অনেকটাই তাদের টিকা প্রাপ্তি নিশ্চিত। তবে এই টোকেন এর উৎস কী? এ ব্যাপারে কিছুই জানেন না সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্যকর্মীরা। এমন অবস্থায় হ-য-ব-র-ল অবস্থা শুরু হয় কেন্দ্র দুটিতে।

মিরপুরের জান্নাত একাডেমি টিকাকেন্দ্রর সমন্বয়ক আবু সাঈদ চৌধুরী সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, কে বা কারা সাদা কাগজে সিরিয়াল নম্বরসহ স্বাক্ষর দিয়ে টোকেন বিলি করেছেন, এই টোকেন নিয়ে যারা আসছেন তারা ভাবছেন এই টোকেন টিকা কেন্দ্র থেকে দেওয়া হয়েছে সেই সূত্র ধরেই বিশৃঙ্খলা হচ্ছে। টিকা প্রত্যাশীদের সিরিয়ালের বাইরে যাদের টোকেন আছে তাদের অতিরিক্ত চাপ সামাল দেওয়া আয়ত্বের বাইরে বলেও জানান তিনি।

জান্নাত একাডেমি টিকা কেন্দ্রের বাইরে টোকেন বিলি করা স্বেচ্ছাসেবক নূরে আলম লেলিন জানান, যারা টোকেন নিয়ে আসছে তারা দেরিতে হলেও টিকা পাবেন।

টিকা প্রত্যাশীদের অভিযোগ, অনেকেই দৈনিক নির্ধারিত বরাদ্দের খুব কাছাকাছি থেকেও টিকা পাননি। আবার কারও অভিযোগ ৩ দিন ঘুরেও পাননি টিকা।

উদয়ন স্কুল টিকা কেন্দ্রের সমন্বয়ক জহির মো. হারুন বলেন, প্রতিদিন কয়েক হাজার মানুষ টিকা নিতে আসছেন। অতিরিক্ত চাপে যারা টিকা নিতে পারেননি তাদের পরের দিন অগ্রাধিকার ভিত্তিতে টিকা দিতে হবে।এভাবেই টিকাদান চলবে।

ঢাকার গণটিকা কেন্দ্রগুলোতে প্রতিদিন ৩৫০ ডোজ করে করোনার টিকা দেওয়া হচ্ছে। দীর্ঘ অপেক্ষার পর বাকিদের টিকা না নিয়ে ফেরত যেতে হচ্ছে।

শুরুতে টিকা নিতে আগ্রহী না হলেও গণটিকা শুরু হবার পর কেন্দ্রগুলোতে উপচেপড়া ভিড় দেখা যাচ্ছে। টিকা নিতে আগ্রহও বেড়েছে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের।

Leave A Reply

Your email address will not be published.