ভিড় বাড়ছে ঘাটে

করোনার সংক্রমণ রোধে আগামী সোমবার (২৮ জুন) থেকে পরবর্তী সাত দিন সারাদেশে কঠোর লকডাউন জারি থাকবে। এই ঘোষণার পর শিমুলিয়া-বাংলাবাজার ও পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ফেরিঘাট ঘাটে ভিড় বেড়েছে।

আজ শনিবার (২৬ জুন) ভোর থেকেই দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল ও দক্ষিণাঞ্চলের উদ্দেশ্যে যাত্রা করা নাগরিকদের আনাগোনা বাড়ছে পদ্মার দুই ঘাটে। করোনার তীব্র সংক্রমণের মধ্যেও স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা না করে তারা গাদাগাদি করে ফেরিতে পাড়ি দিচ্ছেন পদ্মা নদী।

শনিবার সকাল থেকে শিমুলিয়া ঘাটে যাত্রী, ব্যক্তিগত ও পণ্যবাহী গাড়ির চাপ বেড়েছে। ফেরি ভর্তি করে পারাপার হচ্ছে। অপরদিকে ফেরি ভর্তি করে আসতে দেখা যাচ্ছে।

বিআইডব্লিউটিসির শিমুলিয়া ঘাটের টার্মিনাল সুপারিটেনডেন্ট মেহেদী হাসান জানান, শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌ রুটের ১৫টির মধ্যে ১৪টি ফেরিই চলাচল করছে। লকডাউনের নিয়ম অনুযায়ী ফেরিতে শুধু রোগী বহনকারী অ্যাম্বুলেন্স এবং জরুরি পণ্য পরিবহণের গাড়ি ছাড়া সব কিছু পারাপারে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। মানুষের চলাচলে নিষেধাজ্ঞা থাকলেও ঘাটে ভিড় জমাচ্ছেন যাত্রীরা।

এদিকে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিসি) আরিচা অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার জিল্লুর রহমান জানান, শনিবার সকাল ৯টার পর মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ঘাটে যাত্রীদের ভিড় বাড়তে শুরু করে। পদ্মায় ১৪টি ফেরি চলছে। ব্যক্তিগত যানবাহন ও পণ্যবাহী ট্রাকই শুধু পারাপার করতে দেওয়া হচ্ছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.