ভারতের সঙ্গে ফ্লাইট চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার

‘এয়ার বাবল’ চুক্তি অনুযায়ী বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার ফ্লাইট চালু হওয়ার কথা থাকলেও করোনার কারণে থমকে যায়। এবার করোনার মধ্যেই ফ্লাইট চালু সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ সরকার। ভারতের সিদ্ধান্ত পেলে শিগরিগই দুই দেশের মধ্যে ফ্লাইট চালু হবে।

 

 

বুধবার (৪ আগস্ট) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব (পূর্ব) মাশফি বিনতে শামস এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

 

 

তিনি বলেন, বুধবার (০৪ আগস্ট) আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক হয়েছে। সিভিল এভিয়েশনের চেয়ারম্যান ভারতের সিভিল এভিয়েশনকে একটা চিঠি দেবেন। তারা সিদ্ধান্ত জানালেই আমরা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারব।

 

 

ভারতের সিদ্ধান্তের পর ফ্লাইট চালু হলেও এটা খুব সীমিত আকারে হবে জানিয়ে মাশফি বিনতে শামস বলেন, সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর সপ্তাহে একটি বা দুইটি ফ্লাইট চলবে। যে শর্তে স্থলবন্দর দিয়ে মানুষ আসছে, ফ্লাইটে আসতে গেলেও একই শর্ত থাকবে।

 

 

এর আগে, গত ২৭ জুলাই পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন তার দপ্তরে সাংবাদিকদের জানান, এয়ার বাবল চালুর বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথাবার্তা চলছে। আগস্টে সুবিধামতো সময়ে ফ্লাইট চালুর বিষয়ে আশা করা যাচ্ছে।

 

 

করোনার বিস্তার ঠেকাতে ৫ জুলাই ভারতসহ ৮টি দেশের সঙ্গে আকাশপথে যোগাযোগ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে বাংলাদেশের বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। ভারত ছাড়া বাকি দেশগুলো হলো- বতসোয়ানা, নেপাল, মঙ্গোলিয়া, নামিবিয়া, পানামা, দক্ষিণ আফ্রিকা ও তিউনিশিয়া।

Leave A Reply

Your email address will not be published.