‘বিশ্বকাপ সেরা’ হওয়ার অপেক্ষায় সাকিব

সাকিব আল হাসান আর রেকর্ড যেন একই সুতোয় গাঁথা। মাঠে নামলেই হয়ে যাচ্ছে রেকর্ড! অসাধারণ, অনবদ্য, অবিশ্বাস্য, অতিমানবীয়- কোনও বিশেষণই এখন আর যথেষ্ট নয় তার জন্য। আজ (রবিবার) আরও একটি রেকর্ডের হাতছানি তার সামনে। ১ উইকেট পেলেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ উইকেটের রেকর্ড গড়বেন তিনি।

আজ (রবিবার) টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা। শারজার এই ম্যাচে একবার উইকেট উদযাপন করতে পারলেই রেকর্ডের আনন্দে ভাসবেন সাকিব। এখন যৌথভাবে শীর্ষে আছেন পাকিস্তানি গ্রেট শহীদ আফ্রিদির সঙ্গে।

এবারের ওমান ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিশ্বকাপ শুরু করেছিলেন তিনি আফ্রিদির থেকে ৯ উইকেট পিছিয়ে থেকে। ওমানের প্রথম রাউন্ডের তিন ম্যাচে ৯ উইকেট শিকার করে ছুঁয়ে ফেলেন সাবেক পাকিস্তান অধিনায়ককে। এবার তাকে ছাড়িয়ে শীর্ষে বসার সুযোগ। এই মুহূর্তে সাকিব ও আফ্রিদির উইকেট সংখ্যা ৩৯। বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ ‍উইকেটশিকারি হতে বাংলাদেশি স্পিনারের চাই একটি উইকেট।

বিশ্বকাপে সাকিবের এই সাফল্যের ধারেকাছে কেউ নেই। কেননা তার নিচে থাকা ছয় বোলারের কেউই আর বিশ্বকাপ খেলছেন না। অন্যদিকে তার প্রতিদ্বন্দ্বীরা আছেন বেশ নিচের দিকে। কাছাকাছি আছেন ক্যারিবিয়ান দুই ক্রিকেটার ডোয়াইন ব্রাভো ও স্যামুয়েল বদ্রি। ব্রাভো ২৫ উইকেট নিয়ে ৯ নম্বরে আর বদ্রি ২৪ উইকেট নিয়ে আছেন ১০ নম্বরে।

সাকিব ২০০৭ সাল থেকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সব আসরে খেলেছেন। টানা সাত বিশ্বকাপ খেলে ২৮ ম্যাচে ৩৯ উইকেট। তার চেয়ে ৬ ম্যাচ বেশি খেলে আফ্রিদির উইকেটও ৩৯। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সাকিবের সেরা সাফল্য ছিল ২০১৬ সালে। সেবার বাঁহাতি এই স্পিনার পেয়েছিলেন ১০ উইকেট। ২০১৪ সালে ঘরের মাঠের বিশ্বকাপে বাঁহাতি স্পিনার পেয়েছিলেন ৮ উইকেট। এবার আগের সব সাফল্য ছাড়িয়ে যাওয়া স্রেফ সময়ের অপেক্ষা।

২০১৯ সালে ইংল্যান্ড ও ওয়েলসের ওয়ানডে বিশ্বকাপে স্বপ্নের মতো সময় কাটিয়েছেন সাকিব। ইতিহাসের একমাত্র অলরাউন্ডার হিসেবে একই আসরে ৫০০ রান ও ১০ উইকেট নেওয়ার কীর্তি গড়েছিলেন। কুড়ি ওভারের বিশ্বকাপে একই পথে হাঁটছেন। তিন ম্যাচে ইতিমধ্যে শিকার ৯ উইকেট, ব্যাট হাতে করেছেন ১০৮ রান।

বাংলাদেশের দুটি জয়ের পেছনেও রয়েছে তার অবদান। তাই তো ম্যাচসেরার পুরস্কারও তার হাতেই। স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে ২ উইকেট নিয়ে বসেন কুড়ি ওভারের ক্রিকেটের সর্বোচ্চ উইকেটেশিকারির আসনে। ৮৯ টি-টোয়েন্টিতে সাকিবের এখন ১১৫ উইকেট। এ পথে তিনি পেছনে ফেলেছেন ১০৭ উইকেট থাকা লাসিথ মালিঙ্গাকে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.