বঙ্গমাতা ছিলেন জাতির পিতার সংগ্রাম সাথী: তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী

তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. মুরাদ হাসান বলেছেন, বঙ্গমাতা ফজিলাতুন নেছা মুজিব শুধু জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শখ মুজিবুর রহমানের জীবনসঙ্গীই ছিলেন না, তিনি ছিলেন জাতির পিতার সংগ্রাম সাথী।

সোমবার বঙ্গমাতা ফজিলাতুন নেছা মুজিবের ৯১তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ৫৫ বছরের জীবনে অধিকাংশ সময় চরম বৈরিতা ও প্রতিকূলতা অতিক্রম করে বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতিকে স্বাধীনতার দিকে ধাবিত করেছেন। তার এই ঐতিহাসিক অভিযাত্রায় বঙ্গমাতা ছিলেন প্রধান সাহস ও সহায়।

৭৫’র ১৫ আগস্টের কালরাতেও বঙ্গমাতার সাহসী ও দৃঢ় মনোভাবের কথা তুলে ধরে প্রতিমন্ত্রী বলেন, মৃত্যুর মুখোমুখি দাঁড়িয়ে মানুষ নিজের জীবন বাঁচায়। কিন্তু ওইদিন বঙ্গমাতা জীবন ভিক্ষা চাননি। তিনি নিজের জীবন দিয়ে গেছেন, রেখে গেছেন মানুষের জন্য মমতা ও ভালোবাসা।

দেশ ও জাতির জন্য বঙ্গমাতার ত্যাগ ও বঙ্গবন্ধুর প্রতিটি সংগ্রামের সাহসী সিদ্ধান্তের পেছনে তার ভূমিকার কথা তরুণ প্রজন্মকে জানানোর ওপর গুরুত্বারোপ করেন প্রতিমন্ত্রী।

সংগঠনের সভাপতি রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন অ্যাড. বলরাম পোদ্দার, শাহে আলম মুরাদ, শেখ মামুন, অরুণ সরকার রানা প্রমুখ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.