বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডে খুনি জিয়া জড়িত: নিখিল

বাংলাদেশ যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেছেন, ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুসহ পরিবারের সদস্যদের নির্মম হত্যাকান্ডে খুনি জিয়া জড়িত। বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ডে সম্পৃক্ততা কারণে খুনি জিয়ার মরনোত্তর বিচার করতে হবে। আমরা যুবলীগ জিয়ার বিচার দাবি করছি।

বুধবার (১১ আগস্ট) শনির আখড়া দনিয়া বিশ্ববিদ্যালয় মাঠে ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের ৬২ নং ওয়ার্ড যুবলীগ আয়োজিত বিনামুল্যে খাদ্য দ্রব্য বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন-ঢাকা-৫ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব কাজী মনিরুল ইসলাম মনু। ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাইনউদ্দিন রানার সভাপতিত্বে ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক এইচ এম রেজাউল করিম রেজার অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন। অনুষ্ঠানে করোনা ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় হয়ে পড়া ৫ শতাধিক পরিবারের মধ্যে খাদ্য সহায়তা দেয়া হয়।

যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পর জিয়া খুনিদের পুর্নবাসন করেছেন। রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করে ভোগদখল করেছেন। আইন করে বঙ্গবন্ধুর হত্যাকান্ডের বিচার বন্ধ করেছে। শুধু জিয়া নন, তার উত্তরসুরি বিএনপি-জামাতও রাষ্ট্রক্ষমতায় এসে মানুষের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলেছেন। নিজের স্বার্থে দেশবিরোধী ষড়যন্ত্র করে চলেছেন।

মোঃ মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেন, করোনা সংকটে বিএনপি কোথাও একমুঠো চাল দেয়নি। একজন মানুষেরও পাশে দাঁড়ায়নি। শুধু সরকারের সমলোচনায় নিয়োজিত, এটা তাদের স্বভাবজাত চরিত্রে পরিণত হয়েছে।

যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার রাজনীতি মানুষের কল্যাণের জন্য। করোনার এই মহাসংকটে প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার নির্দেশে যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস্ পরশ এর নেতৃত্বে যুবলীগ মানুষের সেবা করে যাচ্ছে। সারাদেশে অসহায় মানুষকে খাদ্য সহায়তা, দাফন ও সৎকার, অক্সিজেন সেবা, টেলিমেডিসিন সেবা, চিকিৎসা পরামর্শ ও সুরক্ষা সামগ্রি বিতরণ করছে যুবলীগ। তারই ধারাবাহিকতায় ঢাকা মহানগর দক্ষিণের ৬২ নং ওয়ার্ডে খাদ্য সামগ্রি বিতরণ করা হয়েছে। শেখ হাসিনার নির্দেশে যুবলীগ সর্বদা মানুষের পাশে থাকবে।

এসময় যুবলীগের উপ-তথ্য ও যোগাযোগ বিষয়ক সম্পাদক এন আই সৈকত, সহ-সম্পাদক মো: মনিরুল ইসলাম আকাশ, কার্যনির্বাহী সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মুক্তার হোসেন চৌধুরী কামাল, সদস্য আসাদুজ্জামান আজম, মুফতি এহসানুল হক মুজাদ্দেদী, ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিনের সহ-সভাপতি নাজমুল হোসেন টুটুল, সৈয়দ আহম্মেদ, মোরসালিন আহম্মেদ , সাংগঠনিক সম্পাদক গাজী সরোয়ার হোসেন বাবু, মাকছুদুর রহমান , প্রচার সম্পাদক আরমান হক বাবু , শিল্প ও বানিজ্য সম্পাদক ওমর শরিফ পলাশ, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক মোক্তার হোসেন, উপ-দপ্তর সম্পাদক খন্দকার আরিফুজ্জামান, ৬২ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি কামরুজ্জামান, সাধারণ সম্পাদক বিপ্লব প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.