ফেসবুকের কালো তালিকায় বাংলাদেশের এক ব্যক্তি ও ৬ জঙ্গি সংগঠন

অপপ্রচার রোধে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রায় চার হাজার জঙ্গি সংগঠন ও ব্যক্তিকে কালো তালিকাভুক্ত করেছে ফেসবুক। এই তালিকায় বাংলাদেশের এক ব্যক্তি ও ছয় জঙ্গি সংগঠনের নাম রয়েছে। সোমবার (১২ অক্টোবর) যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য ইন্টারসেপ্ট ফেসবুকের গোপন এ তালিকা প্রকাশ করেছে।

তালিকাভুক্ত ছয় বাংলাদেশি সংগঠন হলো- আল মুরসালাত মিডিয়া, ইসলামিক স্টেট বাংলাদেশ, হরকাত উল-জিহাদ-ই-ইসলামী বাংলাদেশ, আনসারুল্লাহ বাংলা টিম, জামায়াত উল মুজাহিদিন বাংলাদেশ ( জেএমবি ) এবং সাহাম আল-হিন্দ মিডিয়া।

ফেসবুকের তালিকায় বিপজ্জনক হিসেবে চিহ্নিত ব্যক্তির নাম তরিকুল ইসলাম। তার সঙ্গে জামায়াত-উল-মুজাহিদিন বাংলাদেশের (জেএমবি) সম্পর্ক আছে।

এছাড়া জঙ্গি সংগঠন জেএমবির সঙ্গে সাহাম আল-হিন্দ মিডিয়ার এবং ইসলামিক স্টেটের (আইএস) সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে আল মুরসালাত মিডিয়ার।

ফেসবুকের এই তালিকায় স্থান পেয়েছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের দাতব্য সংস্থা, হাসপাতাল, লেখক, রাজনীতিক, এমনকি মৃত ঐতিহাসিক ব্যক্তিও। এসব ব্যক্তি সংগঠনকে ফেসবুকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

যারা এসব তালিকাভুক্ত ব্যক্তি ও সংগঠন নিয়ে আলোচনা করেন তাদেরকেও শাস্তির আওতায় আনে ফেসবুক। প্রতিষ্ঠানটি জানায়, যারা জঙ্গি সংগঠনগুলোর মতো মারাত্মক ক্ষতিকর কাজ করতে পারেন তাদেরকে প্রথম স্তরে, যারা সিরিয়ার সশস্ত্র বিদ্রোহী গোষ্ঠীগুলোর মতো সহিংস তাদেরকে দ্বিতীয় স্তরে এবং যারা ফেসবুকের বিদ্বেষমূলক বক্তব্য এবং বিপজ্জনক সংগঠনের নীতিমালা লঙ্ঘন করে তাদেরকে তৃতীয় স্তরের শাস্তির আওতায় আনা হয়। তাই বাংলাদেশের যেসব জঙ্গি সংগঠন ও ব্যক্তির নাম তালিকায় আছে, তাদের নিয়ে আলোচনা করলেও শাস্তির মুখে পড়তে হতে পারে ব্যবহারকারীদের।

Leave A Reply

Your email address will not be published.