ফেরিতে যাত্রীবাহী গাড়ি ও যাত্রী পরিবহন পারাপার বন্ধ

শুক্রবার (৯ জুলাই) থেকে ফেরিতে করে যাত্রীবাহী সকল গাড়ি ও যাত্রী পরিবহন বন্ধ থাকবে বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) চেয়ারম্যান সৈয়দ মো. তাজুল ইসলাম।

বিআইডব্লিউটিসি চেয়ারম্যান বলেন, করোনাকালে স্বাস্থ্যবিধি মেনে কেবল জরুরি পণ্যবাহী গাড়ি, অ্যাম্বুলেন্স ও জরুরি সেবা প্রতিষ্ঠানের গাড়ি পারাপার করতে দেয়া হবে। ফেরিতে যাত্রীবাহী সকল গাড়ি ও যাত্রী পরিবহন পারাপার আজ থেকে বন্ধ থাকবে।

তিনি বলেন, কোরবানির ঈদ ঘনিয়ে আসছে। এরই মধ্যে মানুষের মাঝে শহর ছাড়ার প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। প্রয়োজন ছাড়া মানুষের চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞা বহাল রয়েছে। এতদিন হয়তো কিছু গাড়িকে সুযোগ দেয়া হতো, মানুষও পার হতে পারতো। তবে আজ থেকে যেন এটা না হয় তাই কঠোরভাবে বিধিনিষেধ মানা হবে।

মহামারি করোনাভাইরাস উদ্বেগজনক হারে বৃদ্ধি পাওয়ায় গত ১ জুলাই সকাল ৬টা থেকে সাতদিনের কঠোর বিধিনিষেধ শুরু হয়। পরে এই বিধিনিষেধ বাড়িয়ে আগামী ১৪ জুলাই পর্যন্ত করা হয়েছে।

কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে জারি করা প্রজ্ঞাপনে ২১টি শর্ত দেয়া হয়। শর্ত মোতাবেক বিধিনিষেধের সময় জরুরি সেবা প্রদান করা দপ্তর-সংস্থা ছাড়া সরকারি-বেসরকারি অফিস, যন্ত্রচালিত যানবাহন, শপিংমল দোকানপাট বন্ধ থাকবে। শিল্প-কারখানা খোলা থাকবে। তবে জনসমাগম হয় এমন কোনো অনুষ্ঠান করা যাবে না।

Leave A Reply

Your email address will not be published.