প্রবাসীদের জন্য স্থাপন হচ্ছে সাপোর্ট সেন্টার

বাংলাদেশ সরকার প্রবাসী কর্মীদের জন্য বিমানবন্দরের নিকটে সাপোর্ট সেন্টার স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে। বিদেশগামী এবং বিদেশফেরত কর্মীদের সাময়িক আবাসনসহ তাদের জন্য তাৎক্ষণিক প্রয়োজনীয় সুবিধাদি প্রদানের জন্য সাপোর্ট সেন্টার স্থাপন করা হবে।

এছাড়াও প্রবাসী কর্মীদের কম খরচে চিকিৎসা সুবিধা দেওয়ার জন্য রাজধানীর ভাটারায় একটি হাসপাতাল ও ডায়গনস্টিক সেন্টার স্থাপন করা হচ্ছে। প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপি

সোমবার (১৮ অক্টোবর) সকালে প্রবাসী কর্মীদের প্রতিবন্ধী সন্তানদের মাঝে ভাতা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।বর্তমান সরকার প্রবাসী বান্ধব সরকার উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, সরকার সবসময় প্রবাসী কর্মীদের কল্যাণের জন্য কাজ করছে। এরই অংশ হিসেবে প্রবাসী কর্মীর প্রতিবন্ধী সন্তানদের মাঝে বছরে ১২ হাজার টাকা করে ভাতা প্রদান করা হচ্ছে।

এ সময় মন্ত্রী আরও বলেন, আমাদের লক্ষ্য শুধু ভাতা প্রদান নয়, আমাদের প্রত্যাশা প্রতিবন্ধী সন্তানরা যেন সুচিকিৎসার মাধ্যমে পুরোপুরিভাবে সুস্থ হয়ে উঠতে পারে। প্রবাসী কল্যাণ ভবনে অনুষ্ঠিত এ সভায় মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন বলেন, দেশের অর্থনীতিতে প্রবাসী কর্মীদের অবদান অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তাদের অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ তাদের প্রতিবন্ধী সন্তানদের মাঝে ভাতা প্রদান করা হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, ভাতার পরিমাণ যাই হোক না কেন, সবচেয়ে বড় কথা হলো সরকার প্রবাসী কর্মীর পরিবারের পাশে রয়েছে।

এতে সভাপতিত্ব করেন ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড এর মহাপরিচালক মো. হামিদুর রহমান। সভায় অন্যান্যের মাঝে জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর মহাপরিচালক মো. শহীদুল আলম এনডিসি, প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. জাহিদুল হক , ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড এর পরিচালক শোয়াইব আহমেদ খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.