দ্বিতীয় ডোজ নেওয়া ৯৩ শতাংশ শরীরে অ্যান্টিবডি

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার প্রথম ভ্যাকসিন দেওয়ার চার সপ্তাহ পর ৪১ শতাংশ গ্রহীতার শরীরে ও দ্বিতীয় ভ্যাকসিন দেওয়ার দুই সপ্তাহ পর ৯৩ শতাংশ অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে। রোববার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কতৃর্পক্ষ আনুষ্ঠানিকভাবে বিষয়টি জানিয়েছে।

গবেষণায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ এবং হাসপাতালের ডাক্তার ও কর্মচারী থেকে ৩০৮টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। ১ম ভ্যাকসিন দেওয়ার ৪ সপ্তাহ পর নমুনা (রক্ত) সংগ্রহ করা হয় এবং ৪১ শতাংশ অংশগ্রহণকারীর শরীরে অ্যান্টিবডি পাওয়া যায়। ২য় ভ্যাকসিন দেওয়ার ২ সপ্তাহ পর নমুনা সংগ্রহ করা হয় এবং ৯৩ শতাংশ অংশগ্রহণকারীর শরীরে অ্যান্টিবডি উপস্থিতির প্রমাণ পাওয়া যায়।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অর্থায়নে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স, কমর্কর্তা ও কর্মচারীদের উপর গবেষণা চালানো হয়। এতে নেতৃত্ব দেন মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের প্রধান ডা. এস এম সামসুজ্জামান।

তিনি বলেন, আমার টিকা দেওয়া পর অ্যান্টিবডির উপস্থিত দেখতে চেষ্টা করেছি। গবেষণা চালানো ব্যাক্তিদের মধ্যে ৮০ শতাংশের ব্য়স ছিল ৪০ থেকে ৫০ বছর। টিকা নেওয়া পর মৃত্যু হবে না, আক্রাম্ত হলেও উপসর্গ দেখা দিবে না, আক্রান্ত হলেও মারাত্মক হবে না।তবে অ্যান্টিবডি কত দিন থাকবে তা এখনও নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না বলে উল্লেখ করেন তিনি। এতে আরও বড় গবেষণা লাগবে বলে জানান গবেষকরা।

Leave A Reply

Your email address will not be published.