‘ডিএনডি এলাকার জলাবদ্ধতা নিরসনে কাজ চলছে’

পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক বলেছেন, অপরিকল্পিত নগরায়ণ, দূষিত শিল্পবর্জ্য, অবৈধ দখল এবং খালগুলোতে স্থানীয়দের ফেলা আবর্জনায় পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা ব্যাহত হচ্ছে। এই জলাবদ্ধতা নিরসনে প্রকল্প এলাকার পাশাপাশি প্রকল্প এলাকার বাইরে পূর্ব লালপুর ও পূর্ব ইসদাইরে ৫ কিউসেক ক্ষমতা সম্পন্ন দুটি লো-লিফট পাম্প স্থাপন হয়েছে। ফতুল্লা এলাকার খালসমূহে খননকাজ চলমান আছে।

বৃহস্পতিবার (৮জুলাই) ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ-ডেমরা (ডিএনডি) এলাকার জলাবদ্ধতা নিরসনে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ে এক জরুরী বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন।

একই বৈঠকে জলাবদ্ধতা নিরসনে উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম বলেন, ‘প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে ড্রেনেজ ব্যবস্থাপনার দৃশ্যমান উন্নয়ন হবে। প্রকল্পাধীন এলাকার জলাবদ্ধতা নিরসনে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে। যেকোনও প্রতিবন্ধকতা দূর করতে আন্তরিকভাবে নির্দেশনা ও নজরদারি করা হচ্ছে।’

এসময় পানি উন্নয়ন বোর্ডের মহাপরিচালক ফজলুর রশিদ, প্রধান প্রকৌশলী আব্দুল মতিন সরকার, প্রকল্প পরিচালক রণেন্দ্র শংকর, ১৯ ইঞ্জিনিয়ার কন্সট্রাকশন ব্যাটালিয়নের লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো: তাকবীম চৌধুরীসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

২০১৬ সালে এই এলাকার জলাবদ্ধতা সমস্যা নিরসনকল্পে প্রধানমন্ত্রী প্রকল্পটির অনুমোদন করেছিলেন। ২০২০ সালের জুনে সময়সীমা নিয়ে প্রকল্প বাস্তবায়নে পানি উন্নয়ন বোর্ড ও সেনাবাহিনীর মধ্যে সমঝোতা স্মারক হয়। নকশা পরিবর্তন, নতুন আইটেম যুক্ত হওয়ায় প্রকল্প মেয়াদ তিন বছর বাড়ানো হয়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.