টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের উদ্ধোধনী দিনেই নামছে বাংলাদেশ

স্বাগতিক ওমান ও পাপুয়া নিউগিনির মধ্যকার লড়াই দিয়ে রোববার (১৭ অক্টোবর) বিকেলে পর্দা উঠছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ডের। রাতে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে মূল পর্বে ওঠার লড়াইয়ে টাইগাররাও শুরু করবে বিশ্বকাপ মিশন। দুটো খেলাই হবে ওমানের মাস্কাটের আল আমিরাত ক্রিকেট স্টেডিয়ামে।

মাঠে গড়াচ্ছে সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের বিশ্বকাপ। বিকেল চারটায় শুরু সেই মহাযজ্ঞ। ওমানের রাজধানীতে উদ্বোধনী ম্যাচে মুখোমুখি হবে স্বাগতিক ওমান ও প্রশান্ত মহাসাগরের দ্বীপ রাষ্ট্র পাপুয়া নিউগিনি।

তবে ১৬ কোটি বাঙালি তাকিয়ে থাকবে রাত ৮টার ম্যাচে। দ্বিতীয় রাউন্ডে ওঠার লড়াইয়ে একই মাঠে নামবে বাংলাদেশ ও স্কটল্যান্ড। প্রস্তুতির দুটি ম্যাচ জয় দিয়ে রাঙিয়ে উৎফুল্ল স্কটিশরা। বাংলাদেশ যেখানে দুটিতেই হেরেছে। তবে শক্তির বিচারে এক ধাপ এগিয়েই থাকবে টাইগাররা।

কাইল কোয়েটজারের অধীনে অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের নিয়ে বিশ্বকাপ দল গড়েছে স্কটল্যান্ড। দলে আছেন রিচার্ড বেরিংটন, ক্যালাম ম্যাকলিওড, সাফিয়ান শরীফ, ম্যাথু ক্রস ও অ্যালি এভান্স।

বাংলাদেশ দলে অভিজ্ঞ, তরুণ আর তারকা দ্যুতি ছড়ানো খেলোয়াড়ের ঘাটতি নেই। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান যেমন আছেন, আছেন মুশফিকুর রহিম ও অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর মতো অভিজ্ঞ খেলোয়াড়।

মুস্তাফিজের কাটারে কুপোকাত হতে পারে স্কটিশ শিবির। সম্প্রতি আলো ছড়ানো নাসুম আহমেদও হতে পারেন তুরুপের তাস। সাইফুদ্দিন-তাসকিনের তাণ্ডব ধসিয়ে দিতে পারে প্রতিপক্ষের ব্যাটিং লাইন। ব্যাটিং লাইনে নুরুল হাসান সোহান আর আফিফ হোসেন হতে পারেন নির্ভরতার প্রতীক।

দুই দলের টি-টোয়েন্টি লড়াই আগে খুব একটা দেখেনি ক্রিকেট বিশ্ব। ২০১২ সালে নেদারল্যান্ডসের হেগে একমাত্র ম্যাচে ৩৪ রানে হেরে যায় বাংলাদেশ। সেই প্রতিশোধ নেওয়ার সুযোগ টাইগারদের সামনে। সঙ্গে মূল পর্বে ওঠার সিঁড়িতে এগিয়ে থাকার প্রত্যয়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.