টিকা নেয়া ও না নেয়াদের মৃত্যুর বিষয়ে নতুন তথ্য দিলো আইইডিসিআর

সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) এক গবেষণায় জানা গেছে, পূর্ণ ডোজ টিকা নেয়া করোনা রোগীদের হাসপাতালে ভর্তির হার সাত শতাংশ এবং টিকা না নেয়া রোগীদের হাসপাতালে ভর্তির হার ২৩ শতাংশ।

ওই গবেষণায় আরো উঠে এসেছে, অসংক্রামক রোগে আক্রান্ত টিকা না নেয়া করোনায় আক্রান্ত রোগীদের হাসপাতালে ভর্তির হার ৩২ শতাংশ এবং পূর্ণ ডোজ টিকা নেয়া রোগীদের ক্ষেত্রে ভর্তির হার ১০ শতাংশ। এছাড়া একের অধিক অসংক্রামক রোগে আক্রান্ত টিকা না নেয়া করোনা রোগীদের হাসপাতালে ভর্তির হার পূর্ণ ডোজ টিকা গ্রহণকারীদের তুলনায় ১৬ শতাংশ বেশি।

গেল মে ও জুন মাসে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের জাতীয় তালিকা থেকে দ্বৈবচয়নের ভিত্তিতে নির্বাচিত ত্রিশোর্ধ্ব এক হাজার ৩৩৪ জনের ওপর এই গবেষণা পরিচালিত হয়। সেই গবেষণায় জানা যায়, টিকা না নেয়া রোগীদের মধ্যে শ্বাসকষ্ট জনিত জটিলতার হার ছিল ১১ শতাংশ। আর পূর্ণ ডোজ টিকা গ্রহণ পরবর্তী আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে এই হার চার শতাংশ।

অসংক্রামক রোগে আক্রান্ত টিকা না নেয়া করোনা রোগীদের মধ্যে শ্বাসকষ্ট জনিত জটিলতার হার পূর্ণ ডোজ টিকা গ্রহণ পরবর্তী আক্রান্তদের তুলনায় ১০ শতাংশ বেশি।

এই গবেষণায় অংশগ্রহণকারী টিকা না নেয়া আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে তিন শতাংশের আইসিইউতে ভর্তির প্রয়োজন হয়েছে। আর পূর্ণ ডোজ টিকা গ্রহণ পরবর্তী আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে এক শতাংশের কম রোগীকে আইসিইউতে ভর্তি করতে হয়েছে।

টিকা না নেয়া আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে তিন শতাংশ মারা গেছেন এবং টিকা গ্রহণ পরবর্তী আক্রান্তদের মধ্যে শূন্য দশমিক তিন শতাংশ রোগী মারা গেছেন।

অন্যদিকে গবেষণায় করোনা টিকার একটি ডোজও গ্রহণ করেননি এমন ৫৯২ জন আক্রান্ত রোগী এবং পূর্ণ ডোজ টিকা নিয়েছেন এমন ৩০৬ জন রোগী অংশগ্রহণ করেন। টিকা গ্রহণ করার অন্তত ১৪ দিন পর নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তারা গবেষণায় অংশগ্রহণ করেন। এসব আক্রান্ত রোগীদের শনাক্ত হওয়ার অন্তত ১৪ দিন অতিবাহিত হওয়ার পর সাক্ষাৎকার গ্রহণ করা হয়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.