চড়া মাছের বাজার

ঈদের পর দুদিন বেশি দামে বিক্রি হওয়ার পর রাজধানীর বাজারে কিছুটা দাম কমা শুরু করেছে সবজির। সেই সঙ্গে সবজিসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় দোকানও খুলছে। সবজির বাজারে স্বস্তি মিললেও উত্তাপ ছড়াচ্ছে মাছের বাজারে। এখনো অধিকাংশ মাছের দোকান বন্ধ। ফলে যে কয়টা মাছের দোকান খোলা রয়েছে তাদের কাছে সরবরাহ কম থাকায় কিছুটা চড়া দামেই মাছ বিক্রি করছেন ব্যবসায়ীরা।

শনিবার (২৪ জুলাই) রাজধানীর মোহাম্মদপুর, শুক্রাবাদ, মগবাজার, ফকিরাপুল যাত্রাবাড়ীসহ কয়েকটি বাজার ঘুরে দেখা গেছে, বেশ কিছু সবজি কেজিপ্রতি ২০-৩০ টাকার মধ্যে বিক্রি হচ্ছে। একদিন আগেই এসব সবজি বিক্রি হয়েছে ৪০ টাকার বেশি দামে।

মাছের বাজার ঘুরে অধিকাংশ দোকানই বন্ধ দেখা গেছে। যে কয়টা দোকান খোলা পাওয়া গেছে তাদের কাছে সব মাছ দেখা যায়নি। ফকিরাপুল মাছ বাজারে গিয়ে মাত্র চারটি দোকান খোলা পাওয়া গেছে। এসব দোকানে রুই, চিংড়ি ও মৃগেল মাছ বিক্রি করতে দেখা গেছে।

এক ব্যবসায়ী জানান, রুই মাছ ৩০০ থেকে ৩৫০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। ঈদের আগে ২২০ থেকে ৩০০ কেজি বিক্রি করা হতো। চিংড়ি বিক্রি হচ্ছে ৭০০ থেকে ৮০০ টাকা কেজি, যা ঈদের আগে ছিল ৬০০ থেকে ৭০০ টাকা কেজি। মৃগেল মাছ ২৪০ থেকে ৩০০ টাকা বিক্রি হচ্ছে, যা ঈদের আগে বিক্রি হতো ২০০ থেকে ২৪০ টাকায়।

মাছ ব্যবসায়ী সাইফুল ইসলাম বলেন, মানুষজন এখনো কোরবানির গোশত খাচ্ছে। এ কারণে মাছের চাহিদা তেমন নেই। তাই এখনো অধিকাংশ মাছের দোকান বন্ধ রয়েছে। আর আড়তেও মাছের সরবরাহ কম থাকায় একটু বেশি দামেই বিক্রি করা হচ্ছে মাছ। তবে আগামী সপ্তাহে বাজার স্বাভাবিক হবে বলে আশা করছি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.