চামড়া সিন্ডিকেট রোধে থাকবে নজরদারি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, এবার কোরবানির ঈদে চামড়ার সিন্ডিকেট প্রতিরোধে আগে থেকেই নজরদারি করবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে সচিবালয়ে আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত বৈঠক শেষে গণমাধ্যমকে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, চামড়া কেনাবেচায় জড়িত সিন্ডিকেট প্রতিরোধে ঈদের আগেই চামড়ার দাম নির্ধারণ করে দেবেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। চামড়া পাচার রোধে এবং চামড়া যেন সীমান্ত অভিমুখে যেতে না পারে, সে ব্যবস্থাও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আগে থেকে করবে।

দেশের বিভিন্ন এলাকায় কোরবানির পশু পরিবহনের সময় চাঁদাবাজি বন্ধে থাকবে বিশেষ নজরদারি। পশুবাহী যানবাহনগুলোকে জোরপূর্বক যেখানে সেখানে থামানো যাবে না। নিরাপত্তা জোরদার করা হবে দেশের শিল্প এলাকাগুলোতে। শিল্প এলাকায় যেকোনও নাশকতা প্রতিরোধে গোয়েন্দারা তৎপর থাকবেন বলেও জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি বলেন, কোরবানীর ঈদ উপলক্ষে খাদ্যদ্রব্য বিশেষ করে মশলাসহ বিভিন্ন পণ্যের মূল্য বৃদ্ধি ও ভেজাল মেশানো রোধে প্রয়োজনে মোবাইল কোর্ট থাকবে। ঈদের সময় সড়ক-মহাসড়ক এবং শিল্পাঞ্চল এলাকায় অনাকাঙ্ক্ষিত যেকোনও জরুরি উদ্ধার কাজে ফায়ার সার্ভিস, অ্যাম্বুলেন্স এবং কুইক রেসপন্স টিম প্রস্তুত থাকবে।

ঢাকায় কোথায় কোরবানির পশুর হাট বসবে সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে। সিটি করপোরেশন কতগুলো হাটের অনুমোদন দিয়েছে, সেটা এই মুহূর্তে আমি বলতে পারবো না। তবে অনেকগুলো হাট এবার তারা বন্ধ করে দিয়েছে। এক্ষেত্রে অনলাইন গরুর হাটকে আমরা উৎসাহিত করছি।

এনআইডি কার্যক্রম সম্পর্কে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘এনআইডির মূল কাজ আগারগাঁওয়ের দিকেই থাকবে। সচিবালয় থেকে মনিটরিং করা হবে। এনআইডি নিয়ে অনেকে অনেক বিতর্ক করছে। এনআইডি তো এমন এক জিনিস, ব্যাংক অ্যাকাউন্ট, মোবাইলে (সিম কিনতে), শনাক্ত করতেও এনআইডি লাগে।

এনআইডির কার্যক্রম কবে নাগাদ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে আসছে- জানতে চাইলে তিনি বলেন, এনআইডি হস্তান্তরে সরকারিভাবে মাত্র সিদ্ধান্ত হয়েছে। হস্তান্তরে লম্বা সময় লাগবে। একটা ব্যবস্থার মাধ্যমে কাজ শুরু করবে আমাদের মন্ত্রণালয়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.