গলা জ্বালা বা চোঁয়া ঢেকুর ওঠা থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার উপায়

খাবারদাবারে একটু অনিয়ম হলেই আমাদের নানা রকম সমস্যা দেখা দেয়। বিশেষ করে আমরা যখন কোনো মশলাজাতীয় খাবার খাই তখন গলা জ্বালা, চোঁয়া ঢেকুর, আর তার পরেই মুঠো মুঠো গ্যাস-অম্বলের সমস্যা দেখা দেয়। এই সমস্যা থেকে পরিত্রাণ পেতে ওষুধ খাওয়া ছাড়া উপায় থাকে না।

তবে চিকিৎসকদের মতে, যখন-তখন ঘন ঘন গ্যাস-অম্বলের ওষুধ খাওয়া শরীরের জন্য একেবারেই ভালো নয়।

ওষুধ ছাড়া এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে প্রতিদিনের রুটিনে কিছু বদল আনাই যথেষ্ট। এই সামান্য কিছু অদলবদল ঘটিয়েই আপনি কব্জায় রাখতে পারবেন এই গলাজ্বালা, চোঁয়া ঢেকুরের মতো অসুখ। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক সেই উপায়গুলো-

>> শরীরের প্রয়োজন অনুযায়ী পানি খান।

>> কোনো ধরনের খাবারে অ্যালার্জি থাকলে তা এড়িয়ে চলুন। বেশি রাতে দুধ বা ফল খাবেন না।

>> প্যাকেটজাত ফলের রস, ঠাণ্ডা পানীয়, সোডা এড়িয়ে কাঁচা ফল, ডাবের পানি ইত্যাদি যোগ করুন ডায়েটে।

>> ভালো করে চিবিয়ে খাবার খান। তাড়াহুড়োয় ভালো করে না চিবানোর ফলে ভালো করে হজম হয় না খাবার। এতে অম্বলের প্রবণতা বাড়ে।

>> সকালে উঠে খালি পেটে গ্যাসের ওষুধ না খেয়ে গরম পানিতে লেবুর রস মিশিয়ে খান। এতে শরীরের টক্সিন বেরিয়ে শরীর সুস্থ থাকবে। খাওয়াদাওয়ার আধা ঘণ্টা বাদে বাদেও এই পানি খেতে পারেন।

>> গলা জ্বালা বা চোঁয়া ঢেকুরের উপদ্রব ঠেকাতে খাবার থেকে আজই বাদ দিন চিনি। পারলে গুড় বা গুড়ের বাতাসা দিন তার পরিবর্তে। নারকেলের চিনি ব্যবহার করতে পারলেও ভালো।

>> যতটা লবণ এখন খান, তার চেয়ে ২ গ্রাম মতো কমিয়ে দিন রোজের খাবার থেকে। কেবল তেল-মশলাই নয়, অতিরিক্ত লবণ গ্যাস-অম্বলের জন্য দায়ী।

>> অসময়ে চা-কফি অনেক ক্ষেত্রে অম্বল ডেকে আনে। বিশেষ করে বয়স বাড়লে যখন তখন চা-কফি খাবেন না। অনেক সময় দুধ চা থেকে অনেকের সমস্যা দেখা দেয়। তেমন হলে লিকার চা খাওয়া অভ্যাস করুন।

>> খিদে পেলে অনেকটা খেয়ে ফেলা আমাদের স্বভাব। খিদে পেলে বা নিমন্ত্রণ বাড়িতে খেতে বসার আগে এক গ্লাস পানি খেয়ে নিন। এতে পেটে অনেকটা জায়গা কমে যায়, ফলে অনেক খাবার খেয়ে ফেলার প্রবণতা কমে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.