করোনা রোগীর অক্সিজেন, শয্যা বাড়ানোর নির্দেশ

দিন যতই যাচ্ছে ততই বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। তাই হাসপাতালগুলোতে করোনা রোগীদের জন্য অক্সিজেন সরবরাহ বৃদ্ধি ও শয্যা সংখ্যা বাড়াতে স্থানীয় প্রশাসনকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে (পিএমও)। বৃহস্পতিবার সকালে দেশের সব বিভাগ ও জেলার প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে এ নির্দেশনা দেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আহমদ কায়কাউস।

সারা দেশে করোনার প্রাদুর্ভাব রোধে জনগণের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় জরুরি করণীয় ও চলমান কার্যক্রম সমন্বয়ের লক্ষ্যে এ ভিডিও কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়। ভিডিও কনফারেন্সে করোনার উপসর্গ বা লক্ষণযুক্ত সব ব্যক্তিকে অবশ্যই ঘরে থাকার অনুরোধ জানান মুখ্যসচিব। প্রয়োজনে তাদের স্থানীয় প্রশাসনের মাধ্যমে আইসোলেশন নিশ্চিত করার নির্দেশ দেন তিনি। এ ছাড়াও অক্সিজেন সরবরাহ বৃদ্ধিসহ হাসপাতালগুলোতে করোনার রোগীদের শয্যা সংখ্যা বাড়াতে নানামুখী পদক্ষেপ নেয়ার নির্দেশনাও দেন তিনি।

গত এপ্রিলে করোনার দ্বিতীয় ধাপের সংক্রমণ রুখতে নানা বিধিনিষেধ আরোপ করেও তা নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না। শনাক্তের সংখ্যা, শতকরা হার প্রতিদিন যেমন বেড়েই চলেছে, তেমনি বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যা। আর করোনার প্রথম ঢেউ বা দ্বিতীয় ঢেউয়ের প্রথম দিকে বড় শহর এলাকায় রোগীর সংখ্যা বেশি হলেও এবার আক্রান্ত হচ্ছে মফস্বল বা গ্রামের মানুষ।

তবে করোনা সংক্রমনের পর থেকে মফস্বলে আইসিইউর অভাব দেখা দেয়। এই এক বছরে শয্যা বা আইসিইউ যত বাড়ানো হয়েছে, তার বেশিরভাগ প্রধান শহরগুলোতে। মফস্বলে শয্যা পাঠালেও বিশেষজ্ঞের অভাব বা টেকনিশিয়ান না থাকায় আইসিইউ ইউনিটগুলো চালু করা যায়নি। সেই সঙ্গে সেন্ট্রাল অক্সিজেন সরবরাহ নিশ্চিত করা যায়নি।

এরই মধ্যে সাতক্ষীরা, বগুড়া, কুষ্টিয়ায় পর্যাপ্ত অক্সিজেনের অভাবে রোগীর মৃত্যুর খবর এসেছে গণমাধ্যমে। সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, অক্সিজেনের চাহিদা মেটানোর মতো সক্ষমতা এখনও আছে। তবে সরবরাহ নিয়ে দুশ্চিন্তা রয়েই গেছে।

মফস্বলের হাসপাতালগুলোতে সেন্টাল অক্সিজেন ব্যবস্থা গড়ে তোলা যায়নি। তাছাড়া চিকিৎসক ও দক্ষ টেকনিশিয়ানের সমস্যাও রয়ে গেছে মফস্বলে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.