করোনা বেড়ে গেলে সামাল দেওয়া যাবে না : স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের জন্য হাসপাতালগুলোতে আর শয্যা বাড়ানো সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশীদ আলম।

রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে দেশে করোনা ও ডেঙ্গু সংক্রমণ নিয়ে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এসব কথা বলেন।

অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশীদ আলম বলেন, মহামারি করোনাভাইরাস যাতে আর না বাড়ে, সেজন্য সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবে হবে। করোনা বেড়ে গেলে সামাল দেওয়া যাবে না।

খুরশীদ আলম আরও বলেন, ‘আমরা ডিএনসিসিতে (ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন) এক হাজার শয্যার কোভিড ডেডিকেটেড হাসপাতাল তৈরি করেছি। সম্প্রতি বঙ্গমাতা ফিল্ড হাসপাতাল তৈরি করা হয়েছে। প্রতিটি জিনিসেরই সীমাবদ্ধতা রয়েছে। আমাদেরও রয়েছে। এর বাইরে গিয়ে আর হাসাপাতালে শয্যা বাড়ানো সম্ভব হবে না।’

এ ছাড়া ডেঙ্গু প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যের ডিজি খুরশিদ আলম আরও বলেন, ডেঙ্গু হলে নিয়ন্ত্রণে স্বাস্থ্য বিভাগ সেবা দেওয়ার আপ্রাণ চেষ্টা করবে। তবে, ডেঙ্গু যাতে না হয়, সেজন্য সিটি করপোরেশনকে কাজ করতে হবে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্য বক্তারা বলেন, স্থানীয় সরকার বিভাগ ও সিটি করপোরেশনের সঠিক তৎপরতা না থাকায় ডেঙ্গু ভয়াবহ আকারে ছড়াচ্ছে। এজন্য করোনা মহামারির মধ্যে ডেঙ্গু চিকিৎসা একটি বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

অনুষ্ঠানে বিভিন্ন বক্তারা আরও বলেন, এই মৌসুমে একসঙ্গে ডেঙ্গু, ম্যালেরিয়া ও করোনায় আক্রান্ত রোগী মিলছে। ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণ না করা গেলে, চিকিৎসা ব্যবস্থাপনার ওপর চাপ আরও বাড়বে বলেও আশঙ্কা তাঁদের। এজন্য ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে সংশ্লিষ্টদের আরও তৎপর হতে হবে। জ্বর হলে আতঙ্কিত না হয়ে চিকিৎসকের নির্দেশনা নিয়ে ডেঙ্গু ও করোনা পরীক্ষার করানোর পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞেরা। এ ছাড়া সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলারও আহ্বান তাঁদের।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ সোসাইটি অব মেডিসিনের সভাপতি অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ বিল্লাল। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য সচিব লোকমান হোসেন মিয়া, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ব্যক্তিগত চিকিৎসক অধ্যাপক এ বি এম আব্দুল্লাহসহ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা।

Leave A Reply

Your email address will not be published.