করোনায় প্রবাসে ৩ হাজার বাংলাদেশির মৃত্যু

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিভিন্ন দেশে ৩ হাজারের বেশি বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। গত সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত বিভিন্ন সূত্র থেকে এসব তথ্য পাওয়া যায়। তবে এ সংখ্যাটি আরও বেশি বলে ধারণা করা হচ্ছে।

করোনা মহামারীতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে এমন প্রবাসীদের লাশ দেশে কম আসায় প্রকৃত পরিসংখ্যানও জানা যাচ্ছে না।

প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের হিসাবে মোট মৃত্যুর অর্ধেকের বেশি মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে। এ ছাড়া যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যেও অনেক প্রবাসীর মৃত্যু হয়েছে। একক দেশ হিসেবে সর্বোচ্চ মৃত্যু হয়েছে সৌদি আরবে। এ পর্যন্ত দেশটিতে ১৩শ’ বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে।

বেসরকারি সংস্থা ব্র্যাক-এর অভিবাসী বিভাগের প্রধান শরিফুল হাসান জানিয়েছেন, তাদের হাতে আসা তথ্য অনুযায়ী করোনা শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত ৩ হাজারের মতো প্রবাসী মারা গেছেন যাদের অর্ধেকের বেশি মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে।

প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের তথ্য অনুযায়ী, গত ৩১শে জুলাই পর্যন্ত ৩০টি দেশে ২২৯৩ জন প্রবাসী বাংলাদেশি করোনায় মৃত্যুবরণ করেন। এরমধ্যে একক দেশ হিসেবে সৌদি আরবে সর্বোচ্চ ১১৯৪ জনের মৃত্যু হয়। এ ছাড়া ওমানে ৩৫২, সংযুক্ত আরব আমিরাতে ২৮৮, মালয়েশিয়ায় ১৩২, বাহরাইনে ৯৭ জন, ব্রুনাইয়ে ২৪, কাতারে ৬২, জর্ডানে ১২, ইরাকে ২৯, ইতালিতে ৬২, কানাডায় ৯, গ্রীসে ৯, লিবিয়ায় ৬, মিশরে ৫, সিঙ্গাপুরে ৪ এবং মালদ্বীপে ৮ জনের মৃত্যু হয়।

প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের দেয়া তথ্যে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, জার্মানিসহ অনেক দেশের তথ্য নেই। এসব দেশেও করোনায় বাংলাদেশি প্রবাসীদের মৃত্যু হয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের তথ্য মতে, ২০২০ সালে ২৮৮৪ জন বাংলাদেশির মরদেহ দেশে আসে। চলতি বছরের আগস্ট পর্যন্ত ২৫৫১ জনের মরদেহ এসেছে। তারা করোনাসহ বিভিন্ন রোগ ও দুর্ঘটনায় মারা যান। এই সময়ে প্রবাসে ঠিক কতজন বাংলাদেশি মারা গেছেন তার সঠিক পরিসংখ্যান নেই।

Leave A Reply

Your email address will not be published.