ওয়েম্বলিতে ইতালির ‘নীল উচ্ছ্বাস’

ফাইনাল ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটেই এক গোলের পর ট্রফি নিয়ে ঘরে ফেরার স্বপ্ন দেখেছিল ইংল্যান্ড। তবে বাধা হয়ে দাঁড়ায় ইতালি। ওয়েম্বলি স্টেডিয়াম কানায় কানায় পূর্ণ। টান টান উত্তেজনা। মুহুর্মুহু আক্রমণ শানিয়ে ইংল্যান্ডকে তটস্থ করে রাখে ইতালি। দ্বিতীয়ার্ধে আরো মরিয়া হয়ে ওঠে আজ্জুরিরা।

শেষ পর্যন্ত সমতা ফেরানো গোলের দেখা পায় ইতালি। অতিরিক্ত সময়ে গড়ায় ম্যাচ। এতেও ম্যাচের ফয়সালা হয়নি। টাইব্রেকারে ৩-২ গোলে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ওয়েম্বলির সব হৈ-হুল্লোড় থামিয়ে দিল ইতালি। নিজেদের মাঠেই ইংল্যান্ডকে কাঁদিয়ে ৫৩ বছর পর আবারো ইউরোর শিরোপা উঠল আজ্জুরিদের হাতে। ফের দেখা গেল আজ্জুরিদের নীলের উচ্ছ্বাস।

ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটে কর্নার কিক পায় ইতালি। কর্নার থেকে ভেসে আসা বল ক্লিয়ারই করা নয় শুধু নিজেদের নিয়ন্ত্রণেও ধরে রাখে ইংল্যান্ড। উঠে যায় কাউন্টার অ্যাটাকে।

ইতালির বক্সের ডান পাশ থেকে বাম পাশে লম্বা পাস দেন কিয়েরান ট্রিপিয়ার। দ্রুতগতিতে এগিয়ে আসা লুক শ ডান পায়ের দুর্দান্ত এক শট নেন তাতে। মুহূর্তেই বলটি জড়িয়ে গেল ইতালির জালে।

বুকাইয়ো সাকার পরিবর্তে কেন গ্যারেথ সাউথগেট কিয়েরান ট্রিপিয়ারকে মাঠে নামালেন, সেটা শুরুতেই বুঝিয়ে দিলেন অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের এই মিডফিল্ডার। তার ঠিকানা লেখা নিখুঁত পাসে যেভাবে বাঁ-পায়ের শটে ইতালির জালে বল জড়ালেন, তা রীতিমত বিস্ময়কর।

Leave A Reply

Your email address will not be published.