ইসির মোট ১২০ কর্মী করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন

দেশে করোনাভাইরাস শনাক্তের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত নির্বাচন কমিশনের (ইসি) ১২০ কর্মকর্তা-কর্মচারী আক্রান্ত হয়েছেন। ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে কয়েকজন মারাও গেছেন। আজ বুধবার ইসি সচিব মো. হুমায়ুন কবীরের সভাপতিত্বে মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে জুম মিটিংয়ের সময় এই তথ্য জানানো হয়।

মো. হুমায়ুন কবীর বলেন, এ ভাইরাসে গত ১ এপ্রিল চট্টগ্রাম জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আতাউর রহমান এবং গত বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. সাইবুর করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান।

তবে লকডাউন ও করোনার এ পরিস্থিতির মধ্যেও জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) সেবা চালু রাখার নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

পরে এ বিষয়ে ইসির অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ সাংবাদিকদের বলেন, করোনার এই মহামারির মধ্যেও জরুরি এনআইডি সেবা চালু রাখতে বলা হয়েছে। কারণ অনেকের কাছে জাতীয় পরিচয়পত্র খুবই দরকারি একটি দলিল।

জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক এ কে এম হুমায়ূন কবীর বলেন, নাগরিকদের বিদেশযাত্রা, টিকা দেওয়া ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি প্রভৃতি জরুরি কারণে এনআইডি সেবা চালু রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

ইসি সূত্রে জানা গেছে, নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদারসহ নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিবালয় ও মাঠপর্যায়ের ১২০ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে অনেকেই সুস্থ হয়ে উঠেছেন। তাঁরা অফিসের কাজেও যোগ দিয়েছেন। কেউ কেউ এখনও অসুস্থ আছেন। তবে তারা সবাই শঙ্কামুক্ত।

Leave A Reply

Your email address will not be published.