ইকুয়েডরের ২ কারাগারে দাঙ্গায় নিহত ২২

ইকুয়েডরের দুটি কারাগারে বন্দিদের মধ্যে সংঘর্ষে অন্তত ২২ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন পুলিশ সদস্যসহ অন্তত ৫০ জন। সহিংসতা ঠেকাতে দেশের সব কারাগারে জরুরি অবস্থা জারি করার ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট গুইলারমো লাসো।

এক টুইটবার্তায় পুলিশ জানিয়েছে, কেটোপ্যাক্সি থেকে বন্দিরা পালাতে চেষ্টা করেছিলেন। তবে ৪৫ জনকে ফের আটক করা হয়েছে।

আন্দিয়ান কাউন্টির এসএনএআই কারা কর্তৃপক্ষ বলেছে, চলতি বছরে দ্বিতীয় বারের মতো এমন বড় ধরনের কারা সহিংসতা ঘটেছে। গোয়াস প্রদেশের কারাগারটিতে সহিংসতা দমনে বিশেষ পুলিশ ইউনিট মোতায়েন করা হয়েছে।

এর আগে গত ফেব্রুয়ারিতে তিনটি কারাগারে সহিংসতায় ৭৯ বন্দি নিহত হয়েছিলেন। দুই বিরোধী গ্রুপের মধ্যেই এই দাঙ্গা হয়েছিল। এ সময় বন্দিদের শিরশ্ছেদ ও পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছে। এছাড়া জুনেও আরেক দাঙ্গায় দুজন নিহত হন।

দক্ষিণ আমেরিকার দেশটির পুলিশ বলছে, এসএনএআই কারাগারে ১০ জন নিহত ও ৩৫ জন আহত হয়েছেন। এছাড়াও গোয়াস জেলে আরও আট বন্দি নিহত হয়েছেন।

বন্দিতে ঠাসা কারাগারগুলোতে সহিংসতা বন্ধে বহু বছর ধরে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে দক্ষিণ আমেরিকার দেশটির কর্মকর্তারা। ২০২০ সালে ইকুয়েডরের কারাগারে ১০৩ বন্দি নিহত হয়েছিলেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.