আসামে মন্দির এলাকায় গরুর মাংস বিক্রি ঠেকাতে নয়া বিল উত্থাপন

গরুর মাংস বিক্রি ঠেকাতে ভারতের আসাম রাজ্যের বিধানসভায় এক নতুন বিল উত্থাপিত হয়েছে। এই বিল পাশ হলে হিন্দু, শিখ ও জেইন সম্প্রদায়ের মন্দির চত্বরের ৫ কিলোমিটারর মধ্যে গরুর গোশত এবং গরুর গোশতজাত পণ্য কেনাবেচা নিষিদ্ধ হবে।

ইন্ডিয়া টুডের এক প্রতিবেদনে জানা যায়, আসাম গো-সুরক্ষা বিল ২০২১ নামের ওই বিলটি গতকাল সোমবার (১২ জুলাই) বিধানসভায় পেশ করেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা।

ভারতের একাধিক রাজ্যে গোহত্যা রোধের আইন থাকলেও, কোনো কোনো জায়গায় গরুর মাংস দোকান থাকা চলবে না, এমন সিদ্ধান্তের বিষয়ে এই প্রথম কেউ প্রস্তাব তুলুলো। এ প্রসঙ্গে আসাম বিধানসভার বিরোধী দলনেতা দেবব্রত সাইকিয়া জানান, বিলটিতে অনেক সমস্যা রয়েছে। তাই আইনজীবীদের পরামর্শ নিচ্ছেন তারা।

তিনি বলেন, ৫ কিলোমিটারের মধ্যে গোমাংস নিষিদ্ধ করার কথা বলা হয়েছে। কিন্তু ওই ৫ কিলোমিটার কিসের ভিত্তিতে নির্ধারণ করা হবে? যেখানে ইচ্ছে পাথর ফেলে মন্দির বানিয়ে ফেলতে পারে যে কেউ। পুরো বিষয়টাই সন্দেহজনক। এর ফলে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা বাড়বে।

বিলটি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন এল ইন্ডিয়া ইউনাইটেড ডেমোক্র্যাটিক ফ্রন্টের বিধায়ক আমিনুল ইসলামও। তার বক্তব্য, গো-সুরক্ষায় এই বিল আনা হয়নি। মুসলমানদের আবেগে আঘাত করাই বিলটির লক্ষ্য, যাতে আরও বিভাজন তৈরি হয়। আমরা এই বিলের বিরোধিতা করছি।

এর আগে, আসামে ১৪ বছরের বেশি বয়সী গরুদের জবাই করতে কোনো বাধা ছিল না।

Leave A Reply

Your email address will not be published.