আলোচনায় যুবলীগের কেন্দ্রীয় পূর্ণাঙ্গ কমিটি

নিজস্ব প্রতিবেদক
গত ২৩ নভেম্বর-২০১৯ যুবলীগের ৭ম জাতীয় কংগ্রেস অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে যুবলীগের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয় যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ মনি’র ছেলে শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয় মোঃ মাইনুল হোসেন খান নিখিল।
সম্মেলনের এর এক মাসের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণার কথা থাকলেও দুই মাস পরও ঘোষণা হয়নি পুর্ণাঙ্গ কমিটি।

ঢাকা সিটি নির্বাচনকে সামনে রেখে যুবলীগসহ আওয়ামী লীগের সহযোগী অনেক সংগঠনের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়নি। গত ১ ফেব্রুয়ারি ঢাকা সিটি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার পর থেকে আলোচনায় যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি। যুবলীগের কমিটিতে স্থান পাওয়ার জন্য চলছে বিভিন্ন নেতাদের সাথে লবিং তদবির।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, ইতি মধ্যে যুবলীগের নতুন নেতৃত্বে আসতে ইচ্ছুক এমন প্রায় ১২শ’ নেতাকর্মী তাদের জীবন বৃত্তান্ত জমা দিয়েছে যুবলীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে। শুরু হয়েছে তাদের জীবন বৃত্তান্ত যাচাই-বাছাই।

বরাবরের মতই বলা হচ্ছে যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে কোন বিতর্কিত নেতা কর্মীর স্থান নাই। যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি হবে স্বচ্ছ, কর্মীবান্ধব, ক্লিন ইমেজ, সুশিক্ষিত নেতা কর্মীদের দিয়ে। যারা অতীতে নানা অপকর্ম করে যুবলীগের সুনাম নষ্ট করেছে তাদের স্থান হবে না।
যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ পূর্ণাঙ্গ কমিটির বিষয়ে সমাজ সংবাদকে বলেন, ঢাকা সিটি নির্বাচনের জন্য যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়নি। অতি শীঘ্রই আমরা নেত্রীর সাথে আলোচানা করে কমিটি ঘোষণা করবো। ইতি মধ্যে আমরা নেতা-কর্মীদের জীবন বৃত্তান্ত যাচাই-বাছাই শুরু করেছি। যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে কোন বিতর্কিত নেতা-কর্মীদের স্থান হবে না।

শোনা যায় গত কমিটিতে অনেকে অর্থ-বাণিজ্যর মাধ্যমে কমিটিতে স্থান পেয়েছে সমাজ সংবাদের এমন প্রশ্নের জবাবে যুবলীগ চেয়ারম্যান বলেন, যারা যুবলীগের কমিটি নিয়ে অর্থ-বাণিজ্য করবে বা অতীতে করেছে তাদের ফল ভালো হয়নি এবং ভবিষ্যতেও হবে না। কমিটি নিয়ে কোন নেতাকর্মী অর্থ-বাণিজ্য করে তার প্রমাণ মিললে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

দলীয় সূত্রে আরো জানা যায়, নেতাকর্মীদের মাঝে আলোচনা হচ্ছে অতীতের কমিটি থেকে বর্তমান কমিটি অনেক বেশি দক্ষতা সম্পর্ণ নেতাকর্মী স্থান পাবেন। গত কমটির অনেকেই বয়সের কারণে যোগ্যতা থাকা সত্ত্বেও বর্তমান কমিটিতে আসতে পারছেন না। তবে গত কমিটির যারা বয়স সীমার মধ্যে আছেন তাদের মধ্য থেকে কর্মীবান্ধব, যোগ্য, সৎ, শিক্ষিত ও সমাজে গ্রহণ যোগ্যতা আছে এমন নেতা কর্মীরা বর্তমান কমিটিতে স্থান পাবে বলে আলোচনা আছে।

আরও পড়ুন
Loading...