আজ থেকে ‘ফ্রি’ লিওনেল মেসি

গত বছর বার্সেলোনা ছাড়ার ঘোষণা দিয়ে সাড়া ফেলে দিয়েছিলেন লিওনেল মেসি। কিন্তু, শেষ পর্যন্ত রিলিজ ক্লজের চড়া মূল্যের ইস্যুতে আর ক্লাব ছাড়া হয়নি তাঁর। এবার থেকে অবশ্য মুক্ত রেকর্ড ছয়বারের বর্ষসেরা ফুটবলার।

গতকাল বুধবার বার্সেলোনার সঙ্গে মেসির চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়েছে। তাই, আজ বৃহস্পতিবার থেকে ‘ফ্রি’ এজেন্ট আর্জেন্টাইন তারকা। এখন বিশ্বের যেকোনো ক্লাবই মেসিকে নিতে চাইলে সরাসরি দর কষাকষি করতে পারবেন।

২০০১ সাল থেকে বার্সেলোনায় মেসির দীর্ঘ ক্যারিয়ারের প্রতিবারই চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে নবায়ন করা হয়েছিল। কিন্তু, এবার তা হয়নি। কাল শেষদিন চলে গেলেও আসেনি কোনো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা।

স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম ‘মার্কা’ জানিয়েছে, আর্থিক বোঝাপড়ার কারণে ৩০ জুন চুক্তির শেষ দিনের মধ্যে মেসির চুক্তি নবায়ন করতে পারেনি কাতালানরা। তবে, বার্সা সভাপতি লাপোর্তার সঙ্গে মেসির বাবার সম্পর্ক ভালো। তাই ক্লাবটির সঙ্গে চুক্তি আবার হতে পারে বলে ধারণা করছে ক্লাবটি।

বর্তমানে কোপা আমেরিকা নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। আর্জেন্টাইন সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে, এই মুহূর্তে চুক্তি নিয়ে মাথা না ঘামিয়ে জাতীয় দলের ফুটবলে মনোযোগী আর্জেন্টাইন অধিনায়ক। আগামী ১১ জুলাই হবে কোপা আমেরিকার ফাইনাল। আর্জেন্টিনা যদি সেই অবদি যায় তাহলে ধারণা করা হচ্ছে এর আগে চুক্তি নিয়ে তেমন কোনো চূড়ান্ত খবর আসছে না।

সংবাদমাধ্যম এএসের খবর অনুযায়ী, ১ জুলাই থেকে নিয়মানুযায়ী কোপা আমেরিকা চলাকালীন যদি মেসি চোট পান তাহলে তার চিকিৎসার দায়িত্ব বার্সেলোনার থাকবে না। একইভাবে চোটের কারণে তিনি যদি লম্বা সময় বাইরে থাকেন তাহলে পরে বার্সেলোনার সঙ্গে তিনি চুক্তি করলেও তাঁর অনুপস্থিতির সময়ের জন্য ফিফা থেকে কোনো ক্ষতিপূরণ পাবে না ক্লাব।

সবমিলে অনেকটা মুক্ত এখন মেসি। তবে বার্সার চিন্তা থাকতে পারে। কারণ মেসি যেহেতু এখন ফ্রি এজেন্ট, তাঁর সঙ্গে চুক্তি করলে লা লিগা এটাকে নতুন খেলোয়াড় কেনা হিসেবে দেখতে পারে। সে ক্ষেত্রে ক্লাবের বেতনের সীমায়ও প্রভাব পড়তে পারে। এমনেতেই করোনা মহামারিতে বার্সার আর্থিক অবস্থা ভালো না। তার উপর মেসির চুক্তি নিয়ে বড় বিপাকেই আছে স্প্যানিশ ক্লাবটি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.