আজ চাঁদ দেখা না গেলে বৃহস্প‌তিবার ব্যাংক খোলা!

আগামীকাল থে‌কে ঈদের তিন দি‌নের ছু‌টি শুরু হ‌বে। ঈদের আগে স্বাভাবিক ব্যাংকিং কার্যক্রম আজ বুধবার (১১ মে) শেষ হ‌বে। লেন‌দেন হ‌বে সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত। কিন্তু আজ শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা না গেলে বৃহস্প‌তিবার (১৩ মে) পোশাকশিল্প এলাকায় ব্যাংক খোলা থাক‌বে বলে জানা গেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক সূ‌ত্রে।

নিয়মানুযায়ী, রমজান মাস ২৯ দিন হিসেব করে ঈদুল ফিতরের ছুটি নির্ধারণ করা হয়। রোজা একদিন বাড়লে ছুটিও একদিন বাড়ে। সে অনুযায়ী বুধবার থেকে ঈদের ছুটি থাকার কথা ছিল। তবে করোনার সংক্রমণ পরিস্থিতিতে মানুষকে কর্মস্থলে রাখতে এক দিন পর এ ছুটি নির্ধারণ করা হয়েছে। তাই এবার সরকারি ছুটি শুরু হবে বৃহস্পতিবার থেকে। এ কার‌ণে আগে থে‌কেই কেন্দ্রীয় ব্যাংক বুধবার পর্যন্ত ব্যাংক খোলা রাখার নি‌র্দেশনা দি‌য়ে‌ছিল।

এ বিষ‌য়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. সিরাজুল ইসলাম ব‌লেন, গ্রাহ‌কের সুবিধার্থে ব্যাংক খোলা র‌য়ে‌ছে। পূ‌র্বের নি‌র্দেশনাই বহাল আছে। সেই অনুযায়ী আজ য‌দি চাঁদ না ওঠে তাহ‌লে রোজা ৩০টা হ‌বে। আগের নি‌র্দেশনা অনুযায়ী সার্কুলা‌রে উল্লেখিত পোশাকশিল্প এলাকায় ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট শাখা বৃহস্প‌তিবার ‌খোলা থাক‌বে। পোশাক শ্রমিকদের ঈ‌দের আগে বেতন ভাতা নিশ্চিত কর‌তেই এ নি‌র্দেশনা দেওয়া হ‌য়ে‌ছে।

সব‌শেষ বাংলাদেশ ব্যাংক গত ৬ মে এক নির্দেশনায় জানায়, ঈদের পূর্বে তৈরি পোশাকশিল্পে কর্মরত শ্রমিক/কর্মচারী/কর্মকর্তাদের বেতন, বোনাস ও অন্যান্য ভাতাদি পরিশোধের সুবিধার্থে এবং রফতানি বাণিজ্য অব্যাহত রাখার স্বার্থে ঢাকা মহানগরী, আশুলিয়া, টঙ্গী, গাজীপুর, সাভার, ভালুকা, নারায়ণগঞ্জ ও চট্টগ্রামে অবস্থিত পোশাকশিল্প এলাকার তফসিলি ব্যাংকের পোশাকশিল্প সংশ্লিষ্ট শাখাসমূহ ও প্রধান কার্যালয়ের সংশ্লিষ্ট বিভাগসমূহ স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে পরিপালন নিশ্চিত করে ১০ মে থেকে ১৩ মে (১৪ মে ২০২১ তারিখে ঈদ হওয়া সাপেক্ষে) খোলা রাখতে হবে।

এদিকে করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে চলমান বিধিনিষেধ ৬ মে থেকে ১৬ মে মধ্যরাত পর্যন্ত বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। এ সময় ব্যাংকও সীমিত পরিসরে খোলা আছে। সাপ্তাহিক ছুটির দিন ছাড়া প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ব্যাংকের লেনদেন হচ্ছে। লেনদেন-পরবর্তী আনুষঙ্গিক কার্যক্রম শেষ করার জন্য ব্যাংক খোলা থাকে বিকেল সাড়ে ৩টা পর্যন্ত।

আরও পড়ুন
Loading...