অনলাইনে পরীক্ষা নেয়ার কথা ভাবছে না সাত কলেজ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজের চূড়ান্ত পরীক্ষা অনলাইনে নেওয়ার কথা ভাবছে না সাত কলেজ কর্তৃপক্ষ। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পর সশররীরে পরীক্ষার কথা ভাবছেন তারা। একাধিক কলেজের অধ্যক্ষের সঙ্গে কথা বলে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিল ১৫ জুন থেকে সশরীরে স্থগিত পরীক্ষা এবং ১ জুলাই থেকে করোনা পরিস্থিতির উপর বিবেচনা করে অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার অনুমতি দিয়েছিল।সাত কলেজ সমন্বয়ক ( ফোকাল পয়েন্ট) ও ঢাকা কলেজ অধ্যক্ষ অধ্যাপক আই কে সেলিম উল্লাহ খোন্দকার জুনেই স্থগিত পরীক্ষা শুরুর আভাস দিলেও পরীক্ষার শুরুর বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোন চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয় নি সাত কলেজ।

কবি নজরুল সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক আমেনা বেগম বলেন, আমরা চেয়েছি দ্রুততম সময়ের মধ্যে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা নিয়ে নেয়ার জন্য। কিন্তু বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে এটি আমাদের জন্য আবারও কঠিন হয়ে গেল। আর পরীক্ষার ব্যাপারে এককভাবে সিদ্ধান্ত নেওয়ার সুযোগ নেই। সাত কলেজের সিদ্ধান্তে শিক্ষামন্ত্রণালয় ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিদ্ধান্তের ব্যাপার রয়েছে।

সরকারি সোহরাওয়ার্দী কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক মোহসীন কবির বলেন, এখন পর্যন্ত আমরা অনলাইনে আমাদের শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করছি। কিন্তু উদ্ভূত পরিস্থিতিতে চূড়ান্ত পরীক্ষা নেয়ার জন্য যে সিদ্ধান্ত আমরা নিয়েছিলাম সেটি বাস্তবায়ন করা সম্ভব হচ্ছে না। তবে আমরা যত দ্রুত সম্ভব পরীক্ষা নেয়ার পক্ষে। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আবার আমরা এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিব।

ইডেন মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক সুপ্রিয়া ভট্টাচার্য বলেন, আগে আমরা যে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম সেটি এখন বাস্তবায়ন করা সম্ভব হচ্ছে না। আমরা আবারও বসবো এবং সিদ্ধান্ত গ্রহণ করব এবং সম্ভাব্য একটি তারিখ নির্ধারণ করব যাতে করে শিক্ষার্থীরা প্রস্তুতি নিতে পারে। তাছাড়া আমরা অনলাইনে পরীক্ষা নেয়ার কথাও ভাবছি না কেননা আমাদের যে বিপুল পরিমাণ শিক্ষার্থী তাদের অনলাইন পরীক্ষা নেয়ার সুযোগ নেই। আমরা এই সপ্তাহে এই বিষয়টা নিয়ে বসবো।

Leave A Reply

Your email address will not be published.