অর্থনীতি

রমজানে নিত্যপণ্যের দাম নিয়ন্ত্রণে কঠোর অবস্থানে সরকার : টিপু মুনশি

রমজানে নিত্যপণ্যের দাম নিয়ন্ত্রণে কঠোর অবস্থানে সরকার : টিপু মুনশি


Warning: printf(): Too few arguments in /home/shamajsh/public_html/wp-content/themes/viral/inc/template-tags.php on line 113
স্টাফ রিপোর্টার: রমজানে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম নিয়ন্ত্রণে ও চাঁদাবাজি বন্ধে সরকার কঠোর অবস্থানে রয়েছে বলে জানিয়েছেন বানিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। তিনি বলেন, কোনো অজুহাতেই রমজানে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বাড়তে দেওয়া হবে না। বাজার মনিটরিং চলছে। সড়কে চাঁদাবাজি বন্ধে সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোকে চিঠি দেওয়া হবে। বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে চালকল মালিকদের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বাজারে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের মজুত, সরবরাহ ও মূল্য স্বাভাবিক রয়েছে। আসন্ন রমজান মাসে কোনো পণ্যের দাম বৃদ্ধি পাবে না এবং সরবরাহে ঘাটতি থাকবে না। চাহিদার তুলনার অনেক বেশি পণ্য মজুত রয়েছে। নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য ও সরবরাহ স্বাভাবিক রাখতে ব্যবসায়ীদের সহযোগিতা কামনা করেন টিপু মুনশি। রমজান মাসে ব্যবসায়ীদের সততার সাথে ন্যায্য মূল্য
বাংলাদেশের পাটে লাভবান ভারত

বাংলাদেশের পাটে লাভবান ভারত


Warning: printf(): Too few arguments in /home/shamajsh/public_html/wp-content/themes/viral/inc/template-tags.php on line 113
*বিবিসি বাংলার প্রতিবেদন* বাংলাদেশে উৎপাদিত পাট দিয়ে তৈরি পণ্যের ব্যাপক চাহিদা বহির্বিশ্বে থাকলেও বাস্তবতা হলো বছরের পর বছর দেশের রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলোকে লোকসান গুনতে হচ্ছে। অথচ প্রতিবেশী ভারত বাংলাদেশ থেকে পাটের কাঁচামাল কিনে সেটা প্রক্রিয়াকরণের মাধ্যমে বিদেশে বিক্রি করছে এবং মুনাফা গড়ছে। বিশ্বব্যাপী খ্যাতি রয়েছে বাংলাদেশের পাটের। ফ্রান্সের প্যারিসে ৯ বছর ধরে পরিবার নিয়ে বসবাস করছেন তৃণা খান। সেখানে স্থানীয়দের নানা ধরনের পাটজাত পণ্য ব্যবহার করতে দেখেছেন। অথচ পাটপণ্য ব্যবহারকারী সেই বিদেশি ক্রেতাদের বেশির ভাগই জানে না এই পাট উৎপাদন হয় বাংলাদেশে। তৃণা খান বলেন, ‘আমি প্যারিসসহ আশপাশের ছোট শহরগুলোতে মানুষকে পাটের জিনিসপত্র ব্যবহার করতে দেখেছি। এমনকি ফাইভস্টার হোটেলগুলোতেও দেখি আমাদের দেশের পাটের তৈরি কার্পেট। কিন্তু তারা এসব জিনিস কিনেছে ভারত থেকে। কেউ জানেই না যে পাট বাংলাদেশে উৎপাদন হয়।’
হালখাতায় কৃষি ব্যাংকের ৫৭৫ কোটি টাকা ঋণ আদায়

হালখাতায় কৃষি ব্যাংকের ৫৭৫ কোটি টাকা ঋণ আদায়


Warning: printf(): Too few arguments in /home/shamajsh/public_html/wp-content/themes/viral/inc/template-tags.php on line 113
স্টাফ রিপোর্টার: বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক ‘শুভ নববর্ষ-১৪২৬’ উপলক্ষে ১১ এপ্রিল সব শাখায় একযোগে হালখাতার আয়োজন করে। এতে এক লাখ ৫১ হাজার ৬৪০ জন ঋণগ্রহীতা ৫৭৪.৭৮ কোটি টাকা ঋণ পরিশোধ করেছে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এর মধ্যে ১১৮.৪৭ কোটি টাকা পুরনো শ্রেণীকৃত এবং ৪৫৬.৩১ কোটি টাকা মেয়াদোত্তীর্ণ ঋণ। হালখাতা অনুষ্ঠানে ৩৯ হাজার ৩৫৬ জন ঋণগ্রহীতার মাঝে ৫৬৯.২৩ কোটি টাকা ঋণ বিতরণ করা হয়েছে।
রিজার্ভ চুরি মামলার তদন্ত প্রতিবেদন পিছিয়েছে

রিজার্ভ চুরি মামলার তদন্ত প্রতিবেদন পিছিয়েছে


Warning: printf(): Too few arguments in /home/shamajsh/public_html/wp-content/themes/viral/inc/template-tags.php on line 113
স্টাফ রিপোর্টার: বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল না করায় নতুন করে তারিখ নির্ধারণ করেছেন আদালত। এবার প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ২১ মে দিন ধার্য করেছেন আদালত। আজ বুধবার মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য ছিল। তবে সিআইডি প্রতিবেদন দাখিল না করায় ঢাকা মহানগর হাকিম সাদবীর ইয়াসির আহসান চৌধুরি নতুন এই দিন ধার্য করেন। ২০১৬ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক থেকে জালিয়াতি করে সুইফট কোডের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংকের ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার হাতিয়ে নেয় দুর্বৃত্তরা। ওই ঘটনায় ২০১৬ সালের ১৫ মার্চ বাংলাদেশ ব্যাংকের অ্যাকাউন্টস অ্যান্ড বাজেটিং ডিপার্টমেন্টের উপ-পরিচালক জোবায়ের বিন হুদা বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে মতিঝিল থানায় মামলা করা হয়।
সরকারি ব্যাংকের চেয়ারম্যান-এমডির একসঙ্গে বিদেশ সফর নয়

সরকারি ব্যাংকের চেয়ারম্যান-এমডির একসঙ্গে বিদেশ সফর নয়


Warning: printf(): Too few arguments in /home/shamajsh/public_html/wp-content/themes/viral/inc/template-tags.php on line 113
স্টাফ রিপোর্টার: সরকারি ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও এমডিরা প্রায়ই একসঙ্গে বিদেশ সফরে যাচ্ছেন। এতে পরিচালনা পর্ষদে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেওয়া যাচ্ছে না। বিদেশ সফরের বিষয়টি অর্থ মন্ত্রণালয়কে জানানোর নিয়ম থাকলেও অনেক ক্ষেত্রে তাও করছেন না চেয়ারম্যান-এমডিরা। তাই চেয়ারম্যান-এমডির একসঙ্গে বিদেশ সফরে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ। গত বুধবার আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ থেকে নিষেধাজ্ঞার পরিপত্র জারি করা হয়। এতে বলা হয়েছে, সম্প্রতি লক্ষ করা যাচ্ছে যে রাষ্ট্র মালিকানাধীন বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর চেয়ারম্যান এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালকরা বিভিন্ন সময়ে একই সঙ্গে বিদেশ সফরে যান। কোনো কোনো ক্ষেত্রে দীর্ঘ সময় অবস্থান করেন। ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদে বর্ণিত বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হলেও তা মন্ত্রণালয়কে যথাসময়ে অবহিত করা হয় না। এমনকি অনেক ক্ষেত্রে জিওর কপিও মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয় না। এতে বলা হয়েছে, চেয়ারম্যান