স্কুল খোলার প্রথম ২ মাসের মধ্যে পরীক্ষা নয়

দীর্ঘদিন বন্ধ থাকা স্কুল-কলেজ আগামী ৪ ফেব্রুয়ারির মধ্যে খোলার বিষয়ে বিষয়ে গাইডলাইন প্রকাশ করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি)। নির্দেশনায় স্কুল খোলার দুই মাসের মধ্যে কোনো পরীক্ষা না নেয়ার কথা বলা হয়েছে। নির্দেশনায় শিক্ষার্থীদের শিফটিং করে নিরাপদ দূরত্বে ক্লাসে বসা, প্রথম ১৫ দিনসহ-শিক্ষা কার্যক্রম গ্রহণ করে আনন্দঘন পরিবেশ তৈরি করতেও বলা হয়েছে। তাই দুই মাসের মধ্যে কোনো পরীক্ষা না নেয়ার কথা বলা হয়েছে।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার গাইডলাইনে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়টি সর্বোচ্চ গুরুত্ব পেয়েছে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই শ্রেণী কার্যক্রম শুরু হবে। এছাড়া স্কুলে প্রবেশের আগে থার্মোমিটার দিয়ে তাপমাত্রা পরীক্ষা করার কথাও বলা হয়েছে। প্রতিটি ক্লাসরুমের বেঞ্চগুলোকে তিন ফুট দূরত্বে বসাতে বলা হয়েছে। বেঞ্চের দৈর্ঘ্য পাঁচ ফুটের কম হলে প্রতি বেঞ্চে একজন করে শিক্ষার্থী বসতে পারবে। বেঞ্চের দৈর্ঘ্য পাঁচ থেকে সাত ফুট হলে প্রতি বেঞ্চে দুজন করে শিক্ষার্থী বসতে পারবে। এতে ছয়টি বেঞ্চে ১২ জন শিক্ষার্থী বসতে পারবে।

কোনো শিক্ষার্থীর শরীরে তাপমাত্রা বেড়ে গেলে বাড়িতে বা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে পাঠানোর ব্যবস্থা রাখতে হবে। প্রতিষ্ঠানে ঢোকার পথে তিন ফুট দূরত্বে মার্কিং করতে হবে। সবার জন্য মাস্ক রাখতে হবে। মাস্ক ছাড়া কোনো শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করা যাবে না। এছাড়া স্থানীয় প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগের সঙ্গে সমন্বয় করে হটলাইন নম্বর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দৃশ্যমান স্থানে ঝুলিয়ে রাখতে হবে।

ইউনিসেফের সহযোগিতায় ৩৯ পৃষ্ঠার নির্দেশনাটি প্রস্তুত করা হয়েছে। গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের পর ১৮ মার্চ থেকে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়। সবশেষ ছুটি বাড়িয়ে আগামী ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত নেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন
Loading...