মুখের ঘা প্রতিরোধ করার ঘরোয়া উপায়

মুখের ঘা নিয়ে অনেকেই যন্ত্রণায় ভুগে থাকেন। প্রায় সপ্তাহখানেক এই ঘা স্থায়ী থাকে। মুখের অভ্যন্তরে ঘা হওয়ার অনেক কারণই রয়েছে। ভিটামিনের অভাব, মানসিক চাপ ও ঘুমের অভাবে মুখে ঘা হয়ে থাকে। অনেক সময় টুথব্রাশের কারণেও মুখে ঘা হয়।

ভারতের বিখ্যাত সাময়িকী ফেমিনা এক প্রতিবেদনে মুখের ঘা প্রতিরোধে কার্যকর কিছু ঘরোয়া উপায় জানিয়েছে। প্রতিকারের উপায়গুলো জেনে নিন-

তুলসীপাতা

তুলসীপাতা মুখের ঘা প্রতিরোধে ভীষণ কার্যকর। এতে রয়েছে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল উপাদান, যা ক্ষত সারাতে দারুণ কাজ করে। তুলসীপাতা চিবিয়ে খেতে পারেন এবং সেইসঙ্গে দিনে দুবার উষ্ণ পানি দিয়ে কুলকুচি করতে পারেন। এতে দ্রুত ফল মিলবে।

লবণ-পানি

মুখের ঘা প্রতিরোধে কার্যকর লবণ। এটি ব্যাকটেরিয়া নির্মূল করে। মাউথওয়াশ হিসেবেও কাজ করে লবণ। এছাড়া এটি ব্যাকটেরিয়া ও মুখের দুর্গন্ধ দূর করে। ভালো ফলের জন্য দিনে দুবার লবণ লাগাতে পারেন ক্ষতস্থানে।

মুখের ঘা প্রতিরোধে রসুন

মুখের ঘা প্রতিরোধে রসুন

রসুন

মুখের ঘা রোধে খুবই উপকারী রসুন। এতে থাকা অ্যালিসিন নামক উপাদান ঘায়ের ব্যথা দূর করে এবং ক্ষতস্থান কমিয়ে আনে। ভালো ফলের জন্য রসুনের কোয়া ক্ষতস্থানে ঘষুন। উপকার মিলবে।

মধু

মুখের ঘা প্রতিরোধে মধু খুবই কার্যকর। এতে রয়েছে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল উপাদান। মধু ক্ষতস্থানের এলাকা আর্দ্র রাখে। মধুর সঙ্গে একটু হলুদ মিশিয়ে লাগালে দ্রুত উপশম হয়। ভালো ফলের জন্য দিনে তিন-চার বার মধু লাগাতে পারেন।

নারকেল তেল

নারকেল তেলে রয়েছে অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি, অ্যান্টি-ফাঙ্গাল ও অ্যান্টি-ভাইরাল উপাদান, যা মুখের ঘা প্রতিরোধে সহায়ক। তাই ক্ষতস্থানে নারকেল তেল লাগান। এটি দ্রুত ব্যথানাশেও সহায়ক।

অ্যালোভেরা জেল

মুখে ঘা হলে অ্যালোভেরা জেল লাগালে তা সহজেই ব্যথানাশ করবে। ক্ষতস্থানে অ্যালোভেরা জেল লাগান। দ্রুত ফল মিলবে।

আরও পড়ুন
Loading...