বিখ্যাত হতেই বাবরকে ধর্ষণ মামলায় ফাঁসিয়েছিলেন সেই নারী

ধর্ষণ আর প্রতারণার মামলায় পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজমকে ফাঁসিয়েছিলেন হামিজা মুখতার নামের এক নারী। তার দাবি ছিল, বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ধর্ষণ করেছেন বাবর আজম। এমনকি গর্ভপাতও করান পাকিস্তান অধিনায়ক। এসব ধামাচাপা দিতে নাকি হামিজাকে মেরে ফেলার হুমকিও দেয়া হয়েছিল।

ওই নারী গণমাধ্যমকে জানান, স্কুলে একসঙ্গে পড়াশোনা করেছেন। তখনই সম্পর্কে জড়ান। এরপর বাড়ে ঘনিষ্ঠতা। শেষে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শারীরিক সম্পর্ক। কিন্তু বাবর আজম যখন অনূর্ধ্ব-১৯ দল থেকে কিছু দিন পর জাতীয় দলে সুযোগ পান তখনই নাকি হামিজা থেকে দূরে সরে যেতে থাকেন।

এর সবই নাকি মিথ্যা! বাবর আজমকে ব্যবহার করে বিখ্যাত হতে চেয়েছিলেন হামিজা মুখতার। জানিয়েছেন, বাবর আজমের সঙ্গে কোনো পরিচয়ই ছিল না তার। হামিজা বাবরের বিরুদ্ধে করা সব অভিযোগ তুলে নিয়ে গণমাধ্যমকে বলেন, বাবরের সঙ্গে তার কোনো পরিচয় ছিল না। স্কুলেও একসঙ্গে পড়েননি।

শুক্রবার টুইটারে পাকিস্তানের সংবাদকর্মী সাজ সাদিকের করা ভিডিও পোস্টে দেখা যায়, হামিজা মুখতার আইনজীবীর সামনে এক চুক্তিনামায় সই করে বলেন, ‘এই অভিযোগ তোলার পেছনে কারো কোনো চাপ নেই। আমার কিছু বন্ধু বলেছিল, বিখ্যাত হতে হলে বাবর আজমের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করতে।’

চলতি মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে নামবে পাকিস্তান। হামিজা মুখতারের আনা মিথ্যা অভিযোগ ঝেড়ে ঘরের মাঠে দুর্দান্ত পারফর্ম করার পালা বাবরের।

আরও পড়ুন
Loading...