প্রশ্নফাঁস হওয়ায় কওমির দাওরায়ে হাদিসের পরীক্ষা বাতিল

স্টাফ রিপোর্টার: প্রশ্নফাঁস হওয়ায় কওমি মাদরাসার অধিভুক্ত দাওরায়ে হাদিস পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে আহমদ শফীর নিয়ন্ত্রণাধীন কওমি মাদরাসাগুলোর সরকারি বোর্ড আল হাইয়াতুল উলইয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশ। জানা গেছে, দাওরায়ে হাদিসের (মাস্টার্স সমমান) বিগত কয়েকটি পরীক্ষায় ফরিদাবাদ মাদরাসাসহ দেশে কয়েকটি স্থানে প্রশ্ন ফাঁসের খবর পাওয়া যায়। এর পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল শনিবার সকালে এক জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এ ছাড়াও সভায় বাংলাদেশ কওমি মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড বেফাকের মেশকাতের (ফজিলত) কেন্দ্রীয় পরীক্ষা বাতিল করা হয়। এ ব্যাপারে বোর্ডের কো-চেয়ারম্যান আল্লামা আশরাফ আলী গণমাধ্যমকে জানান, তার সভাপতিত্বে শনিবার রাজধানীর মতিঝিলের আল হাইয়াতুল উলইয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশের কার্যালয়ে একটি জরুরি বৈঠক হয়। এই বৈঠকেই পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। প্রসঙ্গত, গত কয়েকদিন ধরেই প্রশ্নপত্র ফাঁসের বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনা হচ্ছিল। প্রশ্নপত্র ফাঁসের বিষয়ে বোর্ডের আলেমরা বিস্ময় প্রকাশ করেন। পরবর্তীতে তা প্রতিরোধ করতে নতুন করে প্রশ্নপত্র প্রণয়ন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। একইসঙ্গে প্রশ্নপত্র পরিবহন, কেন্দ্রে কেন্দ্রে নেওয়া, বিশেষ তালার ব্যবস্থা করা, তালার চাবি সুনির্দিষ্ট এক থেকে দুজনের কাছে রাখার বিষয়ে বিস্তারিত কথা বলেন বোর্ডের কর্তা আলেমরা। এর পরই বোর্ডের জরুরি বৈঠকে এমন সিদ্ধান্ত আসল। উল্লেখ্য, গত ৮ এপ্রিল থেকে আল হাইয়াতুল উলইয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশের অধীনে দাওরায়ে হাদিসের পরীক্ষা শুরু হয়। আগামী ১৮ এপ্রিল পরীক্ষা শেষ হওয়ার কথা ছিল। ছয়টি শিক্ষাবোর্ডের অধীনে এ বছর পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছেন মোট ২৬ হাজার ৭২১ জন শিক্ষার্থী।

print

Facebook Comments

৬৩ বার পঠিত