পিল খাইয়ে নারী শিষ্যদের ধর্ষণ, গুরুর এক হাজার বছরের কারাদণ্ড

নারীদের ওপর অত্যাচারের একাধিক অভিযোগে ৬৪ বছরের এক জনপ্রিয় ধর্মগুরুকে এক হাজার ৭৫ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সোমবার তুরস্কের একটি আদালত অভিযুক্ত ধর্মগুরু ওকতারের বিরুদ্ধে এ রায় দেন।

তার বিরুদ্ধে যৌন হয়রানি, নাবালিকাদের যৌন নির্যাতন, প্রতারণা এবং রাজনৈতিক ও সামরিক গুপ্তচরভিত্তিক কাজের অভিযোগ আনা হয়। এর আগে ডিসেম্বরে ওকতার বিচারককে বলেছিলেন, তার প্রায় এক হাজার গার্লফ্রেন্ড রয়েছে। পুলিশ জানায়, ওকতারের ভাবনায় নারীরা ‘পোষ্য’ বলে বিবেচিত হত। এই ধর্মগুরুর দাবি, তার জীবনে প্রেম বিলিয়ে চলাই লক্ষ্য। অশেষ প্রণয় তার হৃদয়ে আছে।

১৯৯০ সালে কয়েকটি কেলেংকারির ঘটনায় ওকতারের নাম সামনে আসে। কিন্ত ২০১১ সাল থেকে তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা জমতে থাকে। এক নারী জানান, ধর্ম প্রচারের নামে নৃশংস যৌন অত্যাচার করেন ওকতার। পুলিশ পরে ওকতারের বাড়ি তল্লাশি করে ৯৬ হাজার গর্ভনিরোধক পিল পায়। যেগুলি জোর করে তার নারী শিষ্যদের খেতে বাধ্য করত এই ধর্মগুরু।

আরও পড়ুন
Loading...