খাদ্য সংরক্ষণে ৮ জেলায় একটি করে আধুনিক স্টিলের সাইলো তৈরি হচ্ছে

খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পাঁচ লাখ ৩৫ হাজার মেট্রিক টন ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন আটটি আধুনিক স্টিল সাইলো নির্মাণ করা হবে। সাইলো নির্মাণসহ খাদ্য ব্যবস্থাপনা উন্নয়নে বিশ্বব্যাংকের কাছ থেকে ২০ দশমিক ২ কোটি ডলার গ্রহণ করেছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশি টাকায় এটি প্রায় এক হাজার ৭৩৭ কোটি দুই লাখ টাকার সমপরিমাণ।

এ প্রকল্পের মোট ব্যয় ধরা হয়েছে এক হাজার ৯১৯ কোটি ৯৬ লাখ ৭৫ হাজার টাকা বলে জানানো হয়েছে বিশ্বব্যাংকের ঢাকা অফিস থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে। এর মধ্যে বেশির ভাগ টাকা ঋণ দিচ্ছে বিশ্বব্যাংক। বরিশাল, নারায়ণগঞ্জ, ঢাকা, আশুগঞ্জ, ময়মনসিংহ, মহেশ্বরপাশা, চট্টগ্রাম ও মধুপুরে সর্বমোট পাঁচ দশমিক ৩৫ লাখ মেট্রিক টন ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন আটটি আধুনিক স্টিল সাইলো নির্মাণ করা হবে। প্রকল্পটি বাংলাদেশকে চ্যালেঞ্জপূর্ণ সময়ে খাদ্য নিরাপত্তাহীনতা, যেমন ঘন ঘন জলবায়ু বিপর্যয় বা বর্তমান করোনা ভাইরাস মহামারির মতো সঙ্কট থেকে মুক্তি দেবে।

বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নের মাধ্যমে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলিতে দুর্যোগ পরবর্তীতে খাদ্য চাহিদা পূরণের জন্য শস্য সংরক্ষণাগারকে বড় করা হবে এ তহবিল ব্যবহার করে। এছাড়া একটি অনলাইন ফুড স্টক অ্যান্ড মার্কেট মনিটরিং সিস্টেমের (এফএসএমএমএস) মাধ্যমে শস্য সংগ্রহের ব্যবস্থাপনার দক্ষতা বাড়িয়ে তুলবে। প্রকল্পটির মাধ্যমে নারীদের জন্য নতুন কাজের সুযোগ তৈরি করবে।

সংস্থাটির বাংলাদেশ ও ভুটানের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক মোহাম্মদ আনিস বলেন, ‘বাংলাদেশের প্রায় ৮০ শতাংশ জনগোষ্ঠী গ্রামীণ অঞ্চলে বাস করে। জলবায়ুর ঝুঁকি এসব মানুষের জীবন-জীবিকা ও খাদ্য সুরক্ষাকে হুমকির মুখে ফেলে দেয়। আধুনিক সাইলো খাদ্য নিরাপত্তাতে নিশ্চিত করতে পারে। বর্তমানে করোনা মহামারির মতো সঙ্কটের সময় খাদ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করতে সহায়তা করবে।’

আরও পড়ুন
Loading...