একজন নয়, শ খানিক মানুষকে খুন করতে চাই: নোরা

সম্প্রতি কারিনা কাপুর খানের শো হোয়াট ওম্যান ওয়ান্ট থ্রি-এর সেটে হাজির হন নোরা ফাতেহি। সেখানে বেবোর মুখোমুখি হন অভিনেত্রী। নোরা যে একজন দক্ষ এবং সুন্দরী নৃত্যশিল্পী, সে বিষয়ে তার প্রশংসা করেন কারিনা। সাইফ এবং তিনি নোরার নৃত্যশৈলীর বড় ভক্ত বলেও মন্তব্য করে কারিনা। যা শুনে হেসে ফেলেন নোরা।

এরপরই নোরা জানান, তিনিও কারিনা-পুত্রের বড় ভক্ত। তৈমুরকে তিনি বিয়ে করতে চান বলেও মন্তব্য করতে দেখা যায় মরোক্কান অভিনেত্রীর। যা শুনে হেসে ফেলেন কারিনাও। তিনি বলেন, তৈমুরের বয়স মাত্র ৪ বছর। জবাব নোরা জানান, তৈমুরের বড় হওয়া পর্যন্ত তিনি অপেক্ষা করতে রাজি। তৈমুর বড় হলে তবেই তিনি কারিনা-পুত্রের সঙ্গে বাগদান সেরে ফেলবেন বলেও জানান নোরা ফাতেহি।

ভারতে নোরার কেউ নেই। ভারতের ভাষা বা সংস্কৃতি একদম অচেনা তার। তারপরও কী পুঁজি করে ভারতে এসেছিলেন তিনি? এটাই ছিল নোরার কাছে রাখা কারিনার প্রথম প্রশ্ন। উত্তরে নোরা বলেন, ‘স্বপ্ন, আর পাঁচ হাজার টাকা।’ নোরাকে যদি বিনা বিচারে একটা ‘ফ্রি খুনে’র প্রস্তাব দেওয়া হয়, তাহলে তিনি কাকে খুন করবেন? এ উত্তরে নোরা বলেন, ‘মাত্র একজনকে? আমি অন্তত শ খানিক মানুষকে খুন করতে চাই।’

এরপর উঠে আসে বলিউডে প্রতিষ্ঠা পেতে নোরার সংগ্রামের গল্প। উঠে আসে কাস্টিংয়ের গল্প। একজন নারী কাস্টিং ডিরেক্টরের ফোন পেয়ে অডিশন দিতে গিয়েছিলেন নোরা। সেখানে ওই কাস্টিং ডিরেক্টর চিৎকার করে নোরাকে বলেছিলেন, ‘বলিউডে প্রতিষ্ঠা পেতে গেলে “এক্স ফ্যাক্টর” লাগে। বলিউডের স্বপ্নে বিভোর হয়ে প্রতিদিন তোমার মতো হাজার হাজার মেয়ে আসে। তোমাকে দিয়ে হবে না। তুমি বরং ভাগো। তোমাদের মতো গুড ফর নাথিং মেয়েদের ভার বইতে বইতে বলিউড ক্লান্ত।’ এসব শুনে অনেক কেঁদেছিলেন নোরা। তারপর ঠিকই প্রতিষ্ঠা পেয়ে দেখিয়েছেন। ওই কাস্টিং ডিরেক্টরও পরে নোরাকে সরি বলেছেন।

আরও পড়ুন
Loading...